বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ‘গ্লোবাল অ্যাম্বাসেডর ফর ডায়াবেটিস’ পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী   * ঢাকায় ব্রিটিশ নাগরিকদের চলাচলে সতর্কতা জারি   * ৬৫ বছরের বেশি বয়সীরাও হজে যেতে পারবেন: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী   * ছাত্রলীগকে গুজবের জবাব দেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর   * বাংলাদেশ ৩০০ কোটির বেশি মানুষের বাজার হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী   * গাইবান্ধা-৫ আসনে উপনির্বাচনে ফের ভোট ৪ জানুয়ারি   * বিবাহবহির্ভূত যৌন সম্পর্ক নিষিদ্ধ করলো ইন্দোনেশিয়া   * সাগরে সুস্পষ্ট লঘুচাপ, ১২ ডিগ্রির নিচে নামলো তাপমাত্রা   * ছাত্রলীগের সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী   * কুমিল্লায় ট্রেনের ধাক্কায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত  

   শিক্ষাঙ্গন -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মাধ্যমিকে ভর্তির লটারির তারিখ পরিবর্তন

অনলাইন ডেস্ক : সারাদেশের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে দেওয়া পরিচালক (মাধ্যমিক) ও ঢাকা মহানগরী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভর্তি কমিটির সদস্যসচিব মোহাম্মদ আজিজ উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ডিজিটাল লটারি অনুষ্ঠানের পরবর্তী তারিখ জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সারাদেশের প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির লটারি আগামী ১২ ডিসেম্বর (সোমবার) দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হবে। আর বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির লটারি পরের দিন ১৩ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) বিকেল ৩টায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হবে। তবে বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে (মহানগরী ও জেলা সদরের সদর উপজেলা পর্যায়ে) ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন হয়নি। ওইসব প্রতিষ্ঠানে আগের নির্ধারিত তারিখেই লটারি হবে।

গত ১৬ নভেম্বর থেকে সরকারি বিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন নেওয়া শুরু হয়েছে। আজ (৬ ডিসেম্বর) পর্যন্ত আবেদন নেওয়া হবে।

সারাদেশে ৪০৫টি সরকারি স্কুলে আসন আছে ৮০ হাজার ৯১টি। আর বেসরকারি ২ হাজার ৯৬১টি স্কুলে আসন রয়েছে ৯ লাখ ৪০ হাজার ৮৭৬টি।

মাধ্যমিকে ভর্তির লটারির তারিখ পরিবর্তন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সারাদেশের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তির তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে দেওয়া পরিচালক (মাধ্যমিক) ও ঢাকা মহানগরী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভর্তি কমিটির সদস্যসচিব মোহাম্মদ আজিজ উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে ডিজিটাল লটারি অনুষ্ঠানের পরবর্তী তারিখ জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সারাদেশের প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির লটারি আগামী ১২ ডিসেম্বর (সোমবার) দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হবে। আর বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির লটারি পরের দিন ১৩ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) বিকেল ৩টায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হবে। তবে বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে (মহানগরী ও জেলা সদরের সদর উপজেলা পর্যায়ে) ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন হয়নি। ওইসব প্রতিষ্ঠানে আগের নির্ধারিত তারিখেই লটারি হবে।

গত ১৬ নভেম্বর থেকে সরকারি বিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন নেওয়া শুরু হয়েছে। আজ (৬ ডিসেম্বর) পর্যন্ত আবেদন নেওয়া হবে।

সারাদেশে ৪০৫টি সরকারি স্কুলে আসন আছে ৮০ হাজার ৯১টি। আর বেসরকারি ২ হাজার ৯৬১টি স্কুলে আসন রয়েছে ৯ লাখ ৪০ হাজার ৮৭৬টি।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তৃতীয় শ্রেণি থেকে কোডিং শেখানো হবে : শিক্ষামন্ত্রী
                                  

আগামী বছর জানুয়ারি থেকে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কোডিং শেখানো হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মতবিনিময় এবং উদ্ভাবন ও শুদ্ধাচার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় উদ্ভাবনে অবদান রাখায় দুজন শিক্ষক ও শুদ্ধাচারে দুই শিক্ষক ও চারজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে পুরস্কার দেওয়া হয়।

ডা. দীপু মনি বলেন, খেলতে খেলতে ৬ থেকে ১৫ বছর বয়সের বাচ্চারা বয়স অনুযায়ী কোডিং, ডিজাইন ও এনিমেশন শিখবে। এভাবেই আমাদের বড় বড় প্রযুক্তিবিদ সৃষ্টি হবে। গত ১৪ বছরে বাংলাদেশ শুধু এগিয়েছে। এমন কোনো খাত নেই যেখানে পিছিয়েছে। আমরা চাই না আমাদের সামনে এগোনোর প্রচেষ্টা আবার থেমে যাক।

তিনি আরও বলেন, সরকারের পরবর্তী মেগা প্রকল্প হবে শিক্ষাখাত। আমরা নতুন শিক্ষা কার্যক্রম নিয়ে আসছি। শেখায় যদি প্রয়োগ না থাকে তাহলে শেখা অপচয় হয়ে যায়।

এ সময় বক্তব্য রাখেন যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডের সদস্য কাজি নাবিল আহমেদ, ডিন কমিটি আহ্বায়ক ড. সৈয়দ মোহাম্মদ গালিব, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. সেলিনা আক্তার প্রমুখ।

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে বয়সের বাধা থাকবে না: শিক্ষামন্ত্রী
                                  

অনলাইন ডেস্ক : শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, কারিগরি শিক্ষার দ্বার আমরা সবার জন্য উন্মুক্ত করছি। উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে বয়সের বাধা আমরা তুলে দিতে চাই। আশা করি, সবাই এ বিষয়ে সহযোগিতা করবেন। দ্রুততার সঙ্গে এটি করতে পারলে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে আর কোনো বয়সের বাধা থাকবে না।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তিতে আসন সংকট হবে না। মাধ্যমিকে যে পরিমাণ পাস করে তার চেয়ে আমাদের আসন সংখ্যা বেশি রয়েছে। তাই মাধ্যমিকে পাস করা সব শিক্ষার্থী ভর্তি হওয়ার পরও আসন খালি খাকবে।

তিনি বলেন, আগামী বছর থেকে শিক্ষার্থী মূল্যায়ন পদ্ধতি বদলে যাচ্ছে। এরই মধ্যে শিক্ষকদের জন্য প্রশিক্ষণ শুরু করা হয়েছে। আগামীতেও ক্রমাগতভাবে এসব প্রশিক্ষণ চলবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অতিমারির মধ্যে অনলাইন শিক্ষায় আমরা এগিয়ে গিয়েছি। সফলভাবে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ করানো সম্ভব হয়েছে। সব শিক্ষককে সরাসরি ও অনলাইনভিত্তিক নানা ধরনের প্রশিক্ষণ দেওয়া অব্যাহত থাকবে।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে ডা. দীপু মনি বলেন, বর্তমানে পাঠ্যপুস্তক তৈরিতে কাগজের সংকট দেখা দিয়েছে। বৈশিকভাবে এ সংকট রয়েছে। এখন কাগজের দাম বেড়েছে। কিছুটা সংকট আমাদেরও তৈরি হয়েছে। এটি নিয়ে বড় ধরনের বিপর্যয় হবে না। আমরা আশা করি, যথাসময়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিতে পারবো।

তিনি বলেন, বিজ্ঞান নিয়ে কিছু শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভীতি কাজ করে বলে মানবিক বিভাগে শিক্ষার্থী বেশি হয়। অংক পারি না, বিজ্ঞান বুঝি না- এমন ধারণা অনেকের থাকে। আমাদের উপযুক্ত শিক্ষকের অভাবে এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। শিক্ষকের ওপর অনেক কিছু নির্ভর করে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন কারিকুলামে পড়ে-বুঝেই পরের ক্লাসে যেতে হবে। কেউ পারবে না বলে শিক্ষক তাকে বিজ্ঞান বিভাগে পড়া থেকে বঞ্চিত করবে সে পরিস্থিতি থাকছে না। আমরা মনে করি শিক্ষার্থী বিজ্ঞানে যেতে চাইলে তাকে পড়তে দেওয়া উচিত। যদি সেখানে সে ভালো করতে না পারে তবে বিভাগ বদলাতে পারে। এখন বিজ্ঞানে পড়তে হবে। মানবিকে পড়লে যে আমি তথ্যপ্রযুক্তি বা বিজ্ঞানে যেতে পারবো না এখন আর সেটি নেই। মানবিকে পড়ে অনেকে তথ্যপ্রযুক্তিতে ভালো করছে। যে কোনো বিভাগ থেকে ডিপ্লোমা করার সুযোগ রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কর্মসংস্থানের জন্য বেশি জরুরি হচ্ছে সফট স্কিল, এন্টারপ্রিনিয়রশিপ (উদ্যোক্তা) স্কিল। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের সব বিভাগের কোর্সের মধ্যে ভাষা শিক্ষা, আইসিটি, সফট স্কিল, উদ্যোক্তা ও নৈতিকতা যুক্ত করতে বলা হয়েছে। প্রত্যেকে এ বিষয়গুলো বুঝে সনদ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বের হবে। যে কোনো বিভাগ থেকে এসব দক্ষতা নিয়ে বের হলে যে কোনো কাজেই সফল হওয়া সম্ভব হবে।

জিপিএ-৫ এ এবারও এগিয়ে মেয়েরা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : গত বছরের মতো এবারও মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হার এবং জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকে ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে মেয়েরা।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) প্রকাশিত ফলাফল বিশ্লেষণ করে এই তথ্য পাওয়া গেছে। এর আগে দুপুর ১টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি পরীক্ষা ফলাফলে বিস্তারিত প্রকাশ করেন।

এ বছর মাধ্যমিকে সারাদেশে পাসের হার ৮৭.৪৪ শতাংশ। এর মধ্যে ছাত্রদের পাসের হার ৮৭ দশমিক ১৬ শতাংশ। সেখানে ছাত্রীরা পাস করেছে ৮৭ দশমিক ৭১ শতাংশ।

মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৯ লাখ ৯৪ হাজার ১৩৭ জন ছাত্র পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। যা ২০২১ সালের তুলনায় ২ লাখ ২১ হাজার ৩৮৬ জন। অংশ নেওয়াদের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১৭ লাখ ৪৩ হাজার ৬১৯ জন।

মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৯ লাখ ৯৫ হাজার ৯৪৪ জন ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল, তাদের মধ্যে পাস করেছে ৮ লাখ ৭৩ হাজার ৫৭৩ জন। আর জিপিএ-৫ পাওয়া ২ লাখ ৬৯ হাজার ৬০২ শিক্ষার্থীর মধ্যে ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন ছাত্র এবং ১ লাখ ৪৮ হাজার ৪৪৬ জন ছাত্রী।

জানা গেছে, ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৯০.০৩ শতাংশ, ময়মনসিংহে ৮৬.৭ শতাংশ, রাজশাহীতে ৮৫.৮৮ শতাংশ, কুমিল্লায় ৯১.২৮ শতাংশ, বরিশালে ৮৯.৬১ শতাংশ, সিলেটে ৭৮.৮২ শতাংশ চট্টগ্রামে ৮৭.৫৩ শতাংশ, যশোরে ৯৫.০৩ শতাংশ দিনাজপুরে ৮১.১৪ শতাংশ। এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ লাখ ৬৯ হাজার ৬০২ পরীক্ষার্থী।

প্রকাশিত ফলাফলে ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে গড় পাসের হার ৮৮ দশমিক ১০ শতাংশ। মাদরাসা বোর্ডে পাসের হার ৮২ দশমিক ২২ শতাংশ, কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৮৪. ৭ শতাংশ।

এ বছর নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখের বেশি অংশ নেয়। মোট তিন হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে শুধু সাধারণ শিক্ষা বোর্ডগুলোর অধীনে এসএসসি পরীক্ষার্থী প্রায় ১৬ লাখ।

৫০ বিদ্যালয়ে সবাই ফেল, শতভাগ পাস ২৯৭৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি বছর মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় ২ হাজার ৯৭৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। আর ৫০ বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী পাস করতে পারেনি। গত বছর এই শূন্য পাস করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ১৮টি। অর্থাৎ এবার কোনা পরীক্ষার্থী পাস না করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে।

এর আগে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল ২৯ হাজার ৩৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, যার মধ্যে শতভাগ পাস করেছিল ৫ হাজার ৪৯৪টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। এতে দেখা যায় গত বছরের তুলনায় এবার শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে ২ হাজার ৫১৯টি। আর শতভাগ ফেল করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে ৩২টি। এবার ৩ হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা হয়।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে গণভবন থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে ফলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর দুপুর ১টায় শিক্ষামন্ত্রী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত ফল তুলে ধরেন।

এতে দেখা যায়, নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলে এবার পাসের হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। গত বছর এর হার ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ ছিল।

এছাড়া এবার মোট জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ লাখ ৬৯ হাজার ৬০২ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ লাখ ৩৩ হাজার ৭৬৩ জন। এবারও জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকে ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে মেয়েরা। এবার ছাত্রীদের মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৪৪৬ জন। অন্যদিকে ছাত্রদের মধ্যে ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন জিপিএ ৫ পেয়েছে।

এছাড়া বোর্ডগুলোর পাসের হার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ঢাকা বোর্ডে ৯০ দশমিক ০৩, ময়মনসিংহ বোর্ডে ৮৬ দশমিক ৭, বরিশাল বোর্ডে ৮৯ দশমিক ৬১, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৮৭ দশমিক ৫৩, কুমিল্লা বোর্ডে ৯১ দশমিক ২৮, দিনাজপুর বোর্ডে ৮১ দশমিক ১৪, যশোর বোর্ডে ৯৫ দশমিক ৩, রাজশাহী বোর্ডে ৮৫ দশমিক ৮৭, সিলে

এসএসসিতে পাসের হার কমেছে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় গত বছরের চেয়ে এ বছর মোট পাসের হার কমেছে।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে গণভবন থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


এতে দেখা যায়, চলতি বছর দেশের নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলে মোট পাসের হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। গত বছর এসএসসি ও সমান পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ। সে হিসাবে এবার মোট পাসের হার কমেছে ৬ দশমিক ১৪ শতাংশ।

এ বছর সারাদেশে নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখের বেশি অংশ নেয়। মোট তিন হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে শুধু সাধারণ শিক্ষা বোর্ডগুলোর অধীনে এসএসসি পরীক্ষার্থী প্রায় ১৬ লাখ।

আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশের পর শিক্ষার্থীরা এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে পারবেন। এছাড়া শিক্ষা বোর্ডগুলোর ফলাফল প্রকাশের ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd -তে রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর, পরীক্ষার নাম, বছর ও শিক্ষা বোর্ড সিলেক্ট করে সাবমিট করলে ফল জানতে পারবেন।

এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে SSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাসের বছর লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।


যেমন ঢাকা বোর্ডের কোনো পরীক্ষার্থী ফল জানতে চাইলে- SSC DHA 123456 2022 লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। ফিরতি এসএমএসে জানা যাবে ফল।

এসএসসি ও সমমানে পাসের হার ৮৭.৪৪ শতাংশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলে এবার পাসের হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। গত বছর এসএসসিতে পাসের হার ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ ছিল।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে গণভবন থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে ফলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফল প্রত্যাশীরা সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট ও খুদেবার্তার মাধ্যমে ফল দেখতে পাচ্ছেন।

জানা গেছে, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৮৯.০২ শতাংশ, রাজশাহী বোর্ডে ৮৫.৮৮ শতাংশ, কুমিল্লা বোর্ডে ৯১.২৮ শতাংশ।

প্রকাশিত ফলাফলে ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে গড় পাসের হার ৮৮ দশমিক ১০ শতাংশ।

এ বছর নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখের বেশি অংশ নেয়। মোট তিন হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে শুধু সাধারণ শিক্ষা বোর্ডগুলোর অধীনে এসএসসি পরীক্ষার্থী প্রায় ১৬ লাখ।

যেভাবে জানবেন এসএসসির ফল

আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশের পর শিক্ষার্থীরা এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে পারবেন। এছাড়া শিক্ষা বোর্ডগুলোর ফলাফল প্রকাশের ওয়েবসাইট www.educationboardresults.gov.bd -তে রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর, পরীক্ষার নাম, বছর ও শিক্ষা বোর্ড সিলেক্ট করে সাবমিট করলে ফল জানতে পারবেন।

এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে SSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাসের বছর লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

যেমন ঢাকা বোর্ডের কোনো পরীক্ষার্থী ফল জানতে চাইলে- SSC DHA 123456 2022 লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। ফিরতি এসএমএসে জানা যাবে ফল।

এসএসসির ফল প্রকাশ সোমবার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে সোমবার (২৮ নভেম্বর)।

রোববার (২৭ নভেম্বর) সকালে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চট্টগ্রামের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নারায়ন চন্দ্র নাথ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


এতে বলা হয়, সোমবার বেলা ১২টায় সারাদেশে একযোগে এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে। অংশগ্রহণকারী পরীক্ষার্থীরা চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট (www.bise-ctg.gov.bd) থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য (রোল/রেজিস্ট্রেশন) প্রদান করে তাদের ফল সংগ্রহ করতে পারবে।

এছাড়াও অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান প্রধানরা সোমবার বেলা ১২টা থেকে প্রতিষ্ঠানের EIIN ব্যবহার করে শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে ফল সংগ্রহ করতে পারবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা উত্তরপত্র পুনঃনিরীক্ষণের জন্য মোবাইল এসএমএস এর মাধ্যমে ২৯ নভেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত আবেদন করতে পারবে।

এসএসসি ২০২২ এর ফল সংক্রান্ত পরিসংখ্যান ব্যাখ্যা করার জন্য চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের নবম তলায় অডিটোরিয়ামে ২৮ নভেম্বর দুপুর দুইটায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

২০২২ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। গতবারের তুলনায় এবার পরীক্ষার্থী কমেছে ১১ হাজার ১২২ জন। ১ হাজার ৯২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ২১৩টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এরমধ্যে চট্টগ্রাম নগর ও জেলার ১ লাখ ৫ হাজার ৯২০ জন শিক্ষার্থী ১২৫টি কেন্দ্রে, কক্সবাজারের ২৩ হাজার ৪৩১ জন শিক্ষার্থী ২৯টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেয়।

এছাড়াও তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে রাঙামাটির ৭ হাজার ৬৫৮ জন শিক্ষার্থী ২১টি কেন্দ্রে, খাগড়াছড়ির ৮ হাজার ৬৬০ জন শিক্ষার্থী ২৩টি কেন্দ্রে এবং বান্দরবানের ৪ হাজার ৪৩ জন শিক্ষার্থী ১৫টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে।

ছেলে পরীক্ষার্থীর চেয়ে মেয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যাই বেশি ছিল চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে। এ বছর ছেলে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৬৮ হাজার ২২৫ জন। অন্যদিকে মেয়ে পরীক্ষার্থী ছিল ৮১ হাজার ৪৮৭ জন। এবছর ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। ৬০ হাজার ২০৪ জন পরীক্ষার্থী এ বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশ নেয়। মানবিক বিভাগ থেকে ৫৯ হাজার ১৩৭ জন এবং বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৩০ হাজার ৩৭১ জন পরীক্ষার্থী এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

এসএসসি-সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ২৮ নভেম্বর
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল আগামী ২৮ নভেম্বর প্রকাশ করা হবে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক আবুল বাশার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর সারাদেশে একযোগে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। ১ অক্টোবর উচ্চতর গণিত (তত্ত্বীয়) পরীক্ষার মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষা শেষ হয়। ১০ থেকে ১৫ অক্টোবরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় ব্যবহারিক পরীক্ষা।

 

ঢাবির ৫৩তম সমাবর্তন আজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ৫৩তম সমাবর্তন আজ। শনিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে সমাবর্তন অনুষ্ঠান হবে। এরই মধ্যে সার্বিক নিরাপত্তাসহ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সমাবর্তন ঘিরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সমাবর্তন উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদার, ভ্রাম্যমাণ দোকান উচ্ছেদ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাসহ বিভিন্ন সৌন্দর্যবর্ধনমূলক কাজ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য এবার আলোকসজ্জা করেনি বিশ্ববিদ্যালয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করবেন রাষ্ট্রপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ। নোবেল বিজয়ী ফরাসি অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. জিন তিরোলে বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। তাকে সম্মানসূচক ডক্তর অব লজ ডিগ্রি দেওয়া হবে।

৫৩তম সমাবর্তনের মহড়া গতকাল শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, রেজিস্ট্রার প্রবীর কুমার সরকার, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, সিনেট, সিন্ডেকেট ও একাডেমিক পরিষদের সদস্য এবং গ্র্যাজুয়েটরা অংশ নেন।

সমাবর্তনে অংশ নিতে ৩০ হাজার ৩৪৮ জন গ্র্যাজুয়েট ও গবেষক রেজিস্ট্রেশন করেছেন। অনুষ্ঠানে ১৩১ জন কৃতী শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীকে ১৫৩টি স্বর্ণপদক, ৯৭ জনকে পিএইচডি, ২ জনকে ডিবিএ এবং ৩৫ জনকে এম ফিল ডিগ্রি দেওয়া হবে। অধিভুক্ত সাত কলেজের রেজিস্ট্রেশনকৃত গ্র্যাজুয়েটরা ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজ ভেন্যু থেকে সমাবর্তনে অংশ নেবেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাজুয়েটরা খেলার মাঠের সুইমিংপুল সংলগ্ন গেট দিয়ে সমাবর্তনস্থলে প্রবেশ করবেন। তাদের জন্য সকাল সাড়ে ৯টায় গেট খোলা হবে এবং তারা বেলা ১১টার মধ্যে অবশ্যই সমাবর্তনস্থলে আসন গ্রহণ করবেন। অনুষ্ঠানস্থলে নিজ নিজ আসন গ্রহণ করার পর কোনোভাবেই মঞ্চের আশেপাশ ও অন্য কোথাও ঘোরাফেরা করা যাবে না। আমন্ত্রিত অতিথিরা জিমনেসিয়াম সংলগ্ন গেট দিয়ে সমাবর্তনস্থলে প্রবেশ করবেন। তাদের জন্য সকাল ১০টায় গেইট খোলা হবে এবং তারা বেলা সাড়ে ১১টার মধ্যে অবশ্যই সমাবর্তনস্থলে আসন গ্রহণ করবেন। সমাবর্তনস্থলে প্রবেশের জন্য মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক।


সমাবর্তন উপলক্ষে আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।

২৮-৩০ নভেম্বরের মধ্যে এসএসসির ফল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ২৮ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে যেকোনো দিন এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ হতে পারে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার।

বৃহস্পতিবার তিনি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, শিক্ষা বোর্ডগুলোর পক্ষ থেকে এই তিন দিনের মধ্যে যেকোনো একদিন ফল প্রকাশের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেদিন সময় দেবেন, সেদিন ফল প্রকাশিত হবে।

এর আগে গত ১৫ সেপ্টেম্বর সারাদেশে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষায় অংশ নেয় ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন শিক্ষার্থী। করোনাভাইরাস সংক্রমণ, পরবর্তী সময়ে সিলেটসহ দেশের কিছু এলাকায় বন্যার কারণে দুই দফায় পেছানো হয় পরীক্ষা।

এসএসসির নির্ধারিত সূচি মার্চ মাস থেকে সাত মাস পিছিয়ে সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হয় পরীক্ষা। দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে মোট ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৭১১ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। মাদরাসা বোর্ডে দাখিলে অংশগ্রহণ করে ২ লাখ ৬৮ হাজার ৪৯৫ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিলে (ভোকেশনাল) পরীক্ষার্থীর ছিল ১ লাখ ৫৩ হাজার ৬৬২।

ভিডিও কনফারেন্সে সমাবর্তন চান না সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা
                                  

 

অনলাইন ডেস্ক : ডিজিটাল সমাবর্তন বয়কট ও আলাদা সমাবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা কলেজের মূল ফটকের সামনে সাত কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়৷

মানববন্ধনে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা জানান, আগামী ১৯ নভেম্বর (শনিবার) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ও উপাদনকল্পে পরিচালিত ১৩৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে।

তারা বলেন, সমাবর্তন হলো একজন স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী শিক্ষার্থীর সবচেয়ে স্মরণীয় দিন। যেখানে শিক্ষার্থীকে একজন সর্বোচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা সনদ হস্তান্তরের মাধ্যমে সম্মানিত করে থাকেন। কিন্তু ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাত কলেজের সমাবর্তন দেওয়ার কারণে এসব কলেজের শিক্ষার্থীরা এ ধরনের সব আয়োজন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ১২৭টি প্রতিষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অতিথিদের সরাসরি উপস্থিতিতে সমাবর্তনে অংশ নেন আর সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজের মাঠ থেকে মূল অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, যেখানে সমাবর্তনে অংশ নেওয়া মোট শিক্ষার্থীর অর্ধকের বেশি সাত কলেজের তারপরও সেখানে এ ধরনের বৈষম্য করা নিন্দনীয়। সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের চাওয়া- এমন একটি সমাবর্তন যেখানে সরাসরি রাষ্ট্রপতি, শিক্ষামন্ত্রী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, একজন সমাবর্তন বক্তাসহ অন্যান্য অতিথিরা উপস্থিত থাকবেন।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া রোমান হাসান বলেন, আমরা ডিজিটাল সমাবর্তন চাই না৷ এটি আমাদের জন্য অপমানের৷ আমরা চাই একসঙ্গে অথবা সাত কলেজের জন্য আলাদা সমাবর্তন৷ এর প্রতিবাদ জানাতেই আমরা রাস্তায় দাঁড়িয়েছি৷

এসময় মানববন্ধনে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা দুই দফা দাবি দাবি জানান

১. সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আলাদা সমাবর্তনের আয়োজন করা।

২. এবং সাত কলেজের ভালো ফলাফল করা শিক্ষার্থীদের স্বর্ণপদক দেওয়া।

জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৯ নভেম্বর (শনিবার)। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে হবে মূল আনুষ্ঠানিকতা। এ সমাবর্তনে অধিভুক্ত ঢাকা কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, সরকারি বাঙলা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজের গ্রাজুয়েটরা ঢাকা কলেজ ক্যাম্পাস এবং ইডেন মহিলা কলেজ ও বেগম বদরুন্নেছা সরকারি মহিলা কলেজের গ্রাজুয়েটরা ইডেন মহিলা কলেজ ক্যাম্পাস ভেন্যুতে সমাবর্তনে অংশ নেবেন।

১৭তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার দীর্ঘ ৩৩ মাস পর ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করলো বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

৩০ ডিসেম্বর সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত স্কুল পর্যায়ের পরীক্ষা হবে। আর কলেজ পর্যায়ের পরীক্ষা হবে ৩১ ডিসেম্বর। এই পরীক্ষাও সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত হবে।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) এনটিআরসিএ পরিচালক (পমূপ্র) তাহসিনুর রহমান সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য দেওয়া হয়।

এর আগে ২০২০ সালের ২৩ জানুয়ারি ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এনটিআরসিএ। ওই বছরের ১৫ ও ১৬ মে প্রিলিমিনারি এবং ৭ ও ৮ আগস্ট লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মহামারির কারণে পরে পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। সবশেষ নতুন করে আবারও পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করলো এনটিআরসিএ।

এদিকে এরইমধ্যে পরীক্ষায় বসতে ১১ লাখ ৭২ হাজার ২৮৬ জন প্রার্থী আবেদন করেছন।

শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা হবে তিন ধাপে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা দিয়ে শুরু হবে প্রথম ধাপ। এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের দ্বিতীয় ধাপে দিতে হবে লিখিত পরীক্ষা। এরপর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের নেওয়া হবে মৌখিক পরীক্ষা।

‘প্রশ্ন সহজ হয়েছে, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে’
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা মহামারি ও বন্যার কারণে কয়েক দফা পিছিয়ে সাত মাস পর আজ রোববার (৬ নভেম্বর) থেকে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। পরীক্ষা শেষে অনেকটা স্বস্তি নিয়েই কেন্দ্র থেকে বেরিয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা বলছেন, প্রশ্ন সহজ হওয়ায় পরীক্ষা অনেকটাই ভালো হয়েছে।

রোববার (৬ নভেম্বর) দুপুর ১টায় রাজধানীর বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে এমনটাই জানান পরীক্ষার্থীরা।

করোনা পরবর্তী সময়ে অনুষ্ঠিত হওয়ায় এসব পরীক্ষার সময় ও বিষয় কমিয়েছে শিক্ষাবোর্ডগুলো। বৈশ্বিক এই পরিস্থিতিতেও শিক্ষার্থীরা স্বস্তি নিয়ে এসেছেন পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে।

বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্র পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সৈয়দ মাইন উদ্দিন বলেন, পরীক্ষার প্রস্তুতি ভালোই নিয়েছিলাম, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে।

জেরিন আক্তার নামে অপর এক শিক্ষার্থী বলেন, আলহামদুলিল্লাহ প্রশ্ন সহজ হয়েছে, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে। বাংলা পরীক্ষা একটু বেশি লিখতে হয়েছে।

আবদুল্লাহ বিন জাফর নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, সময় মেইনটেন করা একটু সমস্যা হয়েছে। শেষ দিকে তাড়াহুড়ো করে লিখতে হয়েছে। পুরো দুই ঘণ্টাই একটু মেইনটেন করা সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়।

আশরাফুল ভূঁইয়া বলেন, সময় যেহেতু কম, প্রশ্নগুলো যদি একটু সহজ হয় সামনের পরীক্ষাগুলো আশা করি ভালো হবে। পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় একটু সমস্যা হয়েছিল প্রস্তুতি নিতে।

এ বছর এইচএসসি পরীক্ষায় দুই হাজার ৬৪৯টি কেন্দ্রে ১২ লাখ তিন হাজার ৪০৭ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে ছয় লাখ ২২ হাজার ৭৯৬ ছাত্র এবং পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৬১১ জন ছাত্রী।

এইচএসসি পরীক্ষায় বসছে ১২ লাখের বেশি শিক্ষার্থী
                                  

নিউজ ডেস্ক : এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আজ। রোববার (৬ নভেম্বর) বেলা ১১টা থেকে সারাদেশে একযোগে এ পরীক্ষা শুরু হবে।

এ বছর দেশের দুই হাজার ৬৪৯টি কেন্দ্রে ১২ লাখ তিন হাজার ৪০৭ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে ছয় লাখ ২২ হাজার ৭৯৬ ছাত্র এবং পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৬১১ জন ছাত্রী।


এ বছর মোট ১১টি শিক্ষাবোর্ডের মধ্যে ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষার্থী ৯ লাখ ৮৫ হাজার ৭১৩ জন। এরমধ্যে ছাত্র পাঁচ লাখ ৮২ হাজার ১৮৩ এবং ছাত্রী পাঁচ লাখ তিন হাজার ৫৩০ জন। দুই হাজার ৬৭৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এসব শিক্ষার্থীরা এক হাজার ৫২৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

অন্যদিকে মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় দুই হাজার ৬৭৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিপরীতে ৪৪৮টি কেন্দ্র ৯৪ হাজার ৭৬৩ পরীক্ষার্থী অংশ নেবেন। তাদের মধ্যে ৫১ হাজার ৬৯৫ ছাত্র এবং ৪৩ হাজার ৬৮ জন ছাত্রী।

এছাড়া এ বছর কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এইচএসসি (বিএম/বিএমটি) এইচএসসি (ভোকেশনাল), ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স পরীক্ষায় এক লাখ ২২ হাজার ৯৩১ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে ৮৮ হাজার ৯১৮ ছাত্র এবং ৩৪ হাজার ১৩ জন ছাত্রী। কারিগরি বোর্ডের অধীনে এক হাজার ৮৫৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ৬৭৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।

রোববার (৬ নভেম্বর) রাজধানীর সরকারি বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।


পরীক্ষার্থীদের জন্য যেসব নির্দেশনা
পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে হবে। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছাড়া পরীক্ষাকেন্দ্রে অন্য কেউ মোবাইল ফোন বা অননুমোদিত ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবেন না।

পরীক্ষা শুরু হওয়ার ২৫ মিনিট আগে প্রশ্নের সেট কোড ঘোষণা করা হবে। প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজবসৃষ্টিকারী ব্যক্তি/ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কোনো প্রতিষ্ঠান, প্রতিষ্ঠানের প্রধান, শিক্ষক কোনোভাবে পাবলিক পরীক্ষায় বেআইনি কাজ করলে সেই প্রতিষ্ঠান, প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং প্রয়োজনে পরীক্ষাকেন্দ্র বাতিল করা হবে।

পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি (যেমন- পরীক্ষার্থী, কক্ষ প্রত্যবেক্ষক, মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্র পরিদর্শন টিম, বোর্ডের কেন্দ্র পরিদর্শন টিম, জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের পরিদর্শন টিম, নিরাপত্তার দায়িত্ব নিয়োজিত আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্য) ছাড়া অন্য কেউই কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।

প্রশ্নপত্র বিতরণের আগে সময়সূচি অনুযায়ী বিষয়, বিষয় কোড, পত্র ও সেট কোড নিশ্চিত হয়ে কক্ষ পর্যবেক্ষকরা বিতরণ করবেন।

এর আগে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজবমুক্ত, নকলমুক্ত, সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ৩ নভেম্বর থেকে ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এক শিফটে চলবে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক শিফটে শিক্ষা কার্যক্রম চলবে। আগামী বছরের (২০২৩ সাল) জানুয়ারি থেকে সারাদেশে কার্যকর হবে এ নিয়ম।

রোববার (৩০ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান।

তিনি বলেন, দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়কে এক শিফটে আনার পরিকল্পনা করছি। আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে এটা কার্যকর করতে পারবো।

সারাদেশে একই সময়ে স্কুল শুরু ও শেষ করার চেষ্টা করা হবে বলে জানান গণশিক্ষা সচিব।

তিনি বলেন, ক্লাসরুম, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর সংখ্যা বিবেচনায় নিয়ে সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক শিফট চালু করা হবে।


   Page 1 of 30
     শিক্ষাঙ্গন
মাধ্যমিকে ভর্তির লটারির তারিখ পরিবর্তন
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তৃতীয় শ্রেণি থেকে কোডিং শেখানো হবে : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে বয়সের বাধা থাকবে না: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
জিপিএ-৫ এ এবারও এগিয়ে মেয়েরা
.............................................................................................
৫০ বিদ্যালয়ে সবাই ফেল, শতভাগ পাস ২৯৭৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে
.............................................................................................
এসএসসিতে পাসের হার কমেছে
.............................................................................................
এসএসসি ও সমমানে পাসের হার ৮৭.৪৪ শতাংশ
.............................................................................................
এসএসসির ফল প্রকাশ সোমবার
.............................................................................................
এসএসসি-সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ২৮ নভেম্বর
.............................................................................................
ঢাবির ৫৩তম সমাবর্তন আজ
.............................................................................................
২৮-৩০ নভেম্বরের মধ্যে এসএসসির ফল
.............................................................................................
ভিডিও কনফারেন্সে সমাবর্তন চান না সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
১৭তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা
.............................................................................................
‘প্রশ্ন সহজ হয়েছে, পরীক্ষাও ভালো হয়েছে’
.............................................................................................
এইচএসসি পরীক্ষায় বসছে ১২ লাখের বেশি শিক্ষার্থী
.............................................................................................
এক শিফটে চলবে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়
.............................................................................................
এইচএসসি শুরু ৬ নভেম্বর, ৪২ দিন সব কোচিং সেন্টার বন্ধ
.............................................................................................
২০২৩ সালের এসএসসি এপ্রিলে, এইচএসসি হতে পারে জুনে
.............................................................................................
ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি রিভা আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেলে
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘চোখ ওঠা’ ছড়াচ্ছে দ্রুত
.............................................................................................
গায়ে গরম চা ঢেলে নির্যাতনের অভিযোগ ইডেন ছাত্রলীগ নেত্রীর বিরুদ্ধে
.............................................................................................
২০২৩ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা সব বিষয়ে
.............................................................................................
এসএসসি: বাংলা দ্বিতীয় পত্রে অনুপস্থিত ৩৩৪৭৯, বহিষ্কার ৮১
.............................................................................................
এসএসসি পরীক্ষা শুরু
.............................................................................................
এসএসসি পরীক্ষায় বসছে ২০ লাখ ২১ হাজার শিক্ষার্থী
.............................................................................................
প্রাথমিকে শিক্ষক বদলি জানুয়ারি-মার্চে, আবেদন ১৫ সেপ্টেম্বর
.............................................................................................
প্রাথমিক-কিন্ডারগার্টেনেও শুক্র-শনিবার ছুটি
.............................................................................................
শোক দিবসে আলোচনা সভা-দোয়া মাহফিল করবেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি বাড়তে পারে: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
নওফেলের আশ্বাসে চবিতে অবরোধ স্থগিত
.............................................................................................
ভর্তিচ্ছুদের দাবি : গুচ্ছ ভর্তিতে সংক্ষিপ্ত নয়, পূর্ণ সিলেবাস থেকেই এসেছে প্রশ্ন
.............................................................................................
গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু শনিবার
.............................................................................................
এক বছরের জন্য চবির আরও ৪ শিক্ষার্থী বহিষ্কার
.............................................................................................
`সি` ইউনিট দিয়ে রাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু
.............................................................................................
চবিতে ছাত্রী হেনস্তার ঘটনায় মূলহোতাসহ গ্রেফতার ৪
.............................................................................................
নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে চবিতে বিক্ষোভ
.............................................................................................
মধ্যরাতে চবি উপাচার্য ভবনের সামনে ছাত্রীদের বিক্ষোভ
.............................................................................................
৭ কলেজে এবার ভর্তির সুযোগ পাবেন ২১৫১৩ শিক্ষার্থী
.............................................................................................
ভর্তি পরীক্ষায় ঢাবির `ক` ইউনিটে ৮৯.৬১ শতাংশই ফেল
.............................................................................................
ঢাবির `খ` ইউনিটের ফলপ্রকাশ আজ
.............................................................................................
বন্যার কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএড পরীক্ষা স্থগিত
.............................................................................................
বন্যায় প্লাবিত শাবিপ্রবি, ২৫ জুন পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ
.............................................................................................
বন্যায় সারাদেশের এসএসসি পরীক্ষা স্থগিত
.............................................................................................
১৫ জুন থেকে তিন সপ্তাহ কোচিং সেন্টার বন্ধ
.............................................................................................
এসএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ
.............................................................................................
এবছরও পিইসি-ইবতেদায়ি পরীক্ষা হচ্ছে না
.............................................................................................
গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদন শুরু ১৫ জুন
.............................................................................................
এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পেলেন ১১৭৬৯ শিক্ষক
.............................................................................................
শিক্ষার্থীরা কে কোন সংগঠন করবে, তাদের নিজস্ব বিষয়: ঢাবি উপাচার্য
.............................................................................................
এবছরও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না!
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD