বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * গণপরিবহন সংকটে দুর্ভোগ   * উত্তরপ্রদেশে ব্যাপক বন্যা, ২৪ ঘণ্টায় নিহত ১০   * কমপ্লিট শাটডাউনেও বাস চালানোর নির্দেশনা   * ঢাকায় ১৬ প্লাটুন আনসার ব্যাটালিয়ন মোতায়েন   * কমপ্লিট শাটডাউন ঘিরে কাউকে সহিংসতা করতে দেওয়া হবে না   * আজ সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’   * দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্র যাত্রাবাড়ী, টোল প্লাজায় আগুন   * প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী   * কোটা সংস্কার আন্দোলন : বৃহস্পতিবার সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঘোষণা   * সাম্য, ন্যায়ভিত্তিক ও শান্তিপূর্ণ সমাজ প্রতিষ্ঠার আহ্বান রাষ্ট্রপতির  

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
হানিফ ফ্লাইওভারে সংঘর্ষ, গুলিতে নিহত ১

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর হানিফ ফ্লাইওভারে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিতে সিয়াম (১৮) নামে এক তরুণ নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১৭ জুলাই) দিবাগত রাত ১২টার দিকে মৃত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে নিয়ে আসেন কয়েকজন। পরে তার মরদেহ হাসপাতালের ভেতরে নিয়ে গিয়ে অটোরিকশায় করে নিয়ে চলে যান তারা।

সিয়ামের গ্রামের বাড়ি ভোলার চরফ্যাশনে। রাজধানীর মাতুয়াইলে থাকতেন।

সঙ্গে আসা স্বজন জানান, ওই তরুণের নাম সিয়াম। তিনি গুলিস্তানের একটি ব্যাটারির দোকানের কর্মচারী। রাতে বাসায় ফেরার পথে হানিফ ফ্লাওয়ারে সংঘর্ষের মধ্যে পড়েন। এ সময় গুলিবিদ্ধ হন। এতে ঘটনাস্থলেই সিয়াম মারা যান। পরে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে এলেও মারা গেছেন বুঝতে পেরে তাঁরা আর হাসপাতালের ভেতর ঢোকেননি। মরদেহ অটোরিকশায় করে বাসায় চলে যাচ্ছেন।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবককে জরুরি বিভাগে আনা হয়েছিল। তিনি মারা যাওয়ায় তাঁর স্বজনেরা মরদেহ হাসপাতালের ভেতরে নেননি। জরুরি বিভাগের গেট থেকেই ফিরিয়ে নিয়ে গেছেন।

হানিফ ফ্লাইওভারে সংঘর্ষ, গুলিতে নিহত ১
                                  

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর হানিফ ফ্লাইওভারে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিতে সিয়াম (১৮) নামে এক তরুণ নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১৭ জুলাই) দিবাগত রাত ১২টার দিকে মৃত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে নিয়ে আসেন কয়েকজন। পরে তার মরদেহ হাসপাতালের ভেতরে নিয়ে গিয়ে অটোরিকশায় করে নিয়ে চলে যান তারা।

সিয়ামের গ্রামের বাড়ি ভোলার চরফ্যাশনে। রাজধানীর মাতুয়াইলে থাকতেন।

সঙ্গে আসা স্বজন জানান, ওই তরুণের নাম সিয়াম। তিনি গুলিস্তানের একটি ব্যাটারির দোকানের কর্মচারী। রাতে বাসায় ফেরার পথে হানিফ ফ্লাওয়ারে সংঘর্ষের মধ্যে পড়েন। এ সময় গুলিবিদ্ধ হন। এতে ঘটনাস্থলেই সিয়াম মারা যান। পরে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে এলেও মারা গেছেন বুঝতে পেরে তাঁরা আর হাসপাতালের ভেতর ঢোকেননি। মরদেহ অটোরিকশায় করে বাসায় চলে যাচ্ছেন।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবককে জরুরি বিভাগে আনা হয়েছিল। তিনি মারা যাওয়ায় তাঁর স্বজনেরা মরদেহ হাসপাতালের ভেতরে নেননি। জরুরি বিভাগের গেট থেকেই ফিরিয়ে নিয়ে গেছেন।

যাত্রাবাড়ীতে মহাসড়ক পুরোপুরি বন্ধ, ভোগান্তি চরমে
                                  

যাত্রাবাড়ীতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন আন্দোলনকারীরা। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকাল থেকেই সেখানে অবস্থান নেন বিক্ষোভকারীরা।

আন্দোলনকারীদের অবস্থানের কারণে কোনো যানবাহন ঢাকা থেকে বের হতে পারছে না। আবার কোনো যানবাহন ঢুকতেও পারছে না। এমনকি রিকশা, মোটরসাইকেল, সাইকেলও যেতে দেওয়া হচ্ছে না। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে অফিসগামী মানুষের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে।

এই এলাকায় অনেক গার্মেন্টস কারখানা থাকায় কর্মীদের হেঁটে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকাল ৮টার দিকে এমন চিত্র দেখা যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, মহাসড়কের রায়েরবাগ অংশে ব্যারিকেড দেওয়ার কারণে ঢাকা থেকে কোনো গাড়ি বের হতে পারছে না। ফলে অনেক গাড়ি আটকা পড়েছে। এর মধ্যে পণ্যবাহী গাড়ির সংখ্যা বেশি। পাশাপাশি দূরপাল্লার বাস, সিএনজি অটোরিকশাও রয়েছে।

অপরপাশে মাতোয়াইল মেডিকেল এলাকায় ব্যারিকেডের কারণে কোনো যানবাহন ঢাকায় ঢুকতে পারছে না।

এদিন সকাল থেকেই আন্দোলনকারীরা মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন। মহাসড়কে টায়ার ও কাঠ দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছেন তারা। এ সময় তাদের হাতে লাঠিসোঁটাও দেখা যায়।

এদিকে সকাল সোয়া ৮টার দিকে পুলিশের একটি গাড়ি এলে বিক্ষোভকারীরা সেটি লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন। একপর্যায়ে পুলিশ সেখান থেকে সটকে পড়ে।

অন্যদিকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় রাতে পুলিশের সঙ্গে কতিপয় আন্দোলনকারীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। বুধবার (১৭ জুলাই) রাত ১০টা থেকে উভয়পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। এরপর হানিফ ফ্লাইওভারের টোল প্লাজায় আগুন দেওয়া হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। সংঘর্ষের ঘটনায় যাত্রাবাড়ী থানা থেকে কুতুবখালী পর্যন্ত মহাসড়ক বন্ধ হয়ে যায়। কয়েকটি মোটরসাইকেল ও সিএনজি পুড়িয়ে দেয় আন্দোলনকরীরা। এর আগে যাত্রাবাড়ী থানায় হামলার ঘটনা ঘটে।

রাতে আন্দোলনকারীদের দখলে থাকা রাস্তা ফাঁকা করতে যৌথ টহল শুরু করেছে র‍্যাব, পুলিশ ও বিজিবি। টহল শুরুর কিছু সময়ের মধ্যেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। বুধবার দিনগত রাত সোয়া ৩টায় যান চলাচল শুরু হয়।

কিন্তু টহলের কিছুক্ষণ পর ফের একত্র হয়ে রাস্তা দখলে নেয় আন্দোলনকারীরা। পুলিশ-র‍্যাব-বিজিবির টহল শেষে রায়েরবাগ, শনির আখড়ায় আটকে থাকা অনেক যানবাহন যাত্রাবাড়ী আসতে পারলেও কিছুক্ষণ পর ফের একত্র হয়ে গাড়ি ভাঙচুর ও সড়কে আগুন জ্বালায় আন্দোলনকারীরা।

আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি: র‌্যাব
                                  

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও শনির আখড়া এলাকায় আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-১০) অধিনায়ক (সিও) মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

বুধবার (১৭ জুলাই) দিনগত রাত আড়াইটার দিকে যাত্রাবাড়ী থানার সামনে গণমাধ্যমকে এ কথা বলেন তিনি।

মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমরা সুন্দরভাবে তাদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারা বিভিন্ন গলি থেকে এসে আমাদের ওপর আক্রমণের চেষ্টা করছে। এখন পর্যন্ত আমরা অত্যন্ত পেশাদারত্বের সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবিলা করে যাচ্ছি। পরিস্থিতি আরও খারাপ হলেও আমাদের কাছে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা আছে।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে পর্যাপ্ত জনবল আছে। আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি। জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থে যেসব লোক রাস্তায় এসেছে তারা যেন রাস্তা ছেড়ে দেয়।

শনির আখড়া ও দনিয়ায় সংঘর্ষ, শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ৬
                                  

রাজধানীর শনির আখড়া এলাকায় কোটা সংস্কারের দাবিতে চলা শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পুলিশের ছররা গুলিতে দুই বছরের শিশুসহ বাবা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এছাড়াও পুলিশের ছোড়া গুলিতে আরও চার জন আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গেছেন। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক।

বুধবার (১৭ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের ছররা গুলিতে আহত মো. বাবলু ও তার দুই বছরের সন্তান রহিত মিয়াকে ঢামেকে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত শিশুর মা বলেন, পুলিশের রাবার বুলেট ও হট্টগোলে শিশুটি বাসায় কান্না করছিল। কান্না থামাতে শিশুটির বাবা সন্তানকে নিয়ে বাইরে আসেন। এ সময় পুলিশের ছররা গুলি বাড়িটির কলাপসিবল গেইটের ভেতরে ঢুকে যায়। এতে বাবা-ছেলে দুজনেই আহত হন।

এদিকে, ঢামেকে পুলিশের রাবার বুলেটে আহত আরও একজনকে নিয়ে আসা হয়। তার নাম ফয়সাল বলে জানান গেছে। তার গায়ে রাবার বুলেটের অসংখ্য আঘাত রয়েছে। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জানান, সংজ্ঞাহীন অবস্থায় তাকে নিয়ে আসা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে অষ্টম শ্রেণির স্কুলশিক্ষার্থী পিয়াস এবং কাপড় মনিরুল রয়েছেন। অন্যরা পথচারী বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে এডিসি আলাউদ্দীন বলেন, সংঘাত সৃষ্টির পর শনির আখড়ায় অতিরিক্ত পুলিশ গেলে ‘হামলাকারী’দের সঙ্গে প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে থেমে থেমে সংঘাত চলে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এ সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানবাহন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। সংঘাতে পুলিশ ও হামলাকারী ছাড়াও কয়েকজন পথচারী আহত হয়েছেন বলে শুনেছেন তিনি।

দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্র যাত্রাবাড়ী, টোল প্লাজায় আগুন
                                  

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। হানিফ ফ্লাইওভারের টোল প্লাজায় আগুন দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১৭ জুলাই) রাত ১০টার দিকে এ প্রতিবেদন লেখা সংঘর্ষ চলছে। শিক্ষার্থী ও পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। শনিরআখড়ার কাজলায় হানিফ ফ্লাইওভারের টোল প্লাজায় আগুন দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলের পাশেই ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি রয়েছে। তবে পুলিশ জায়গাটির নিয়ন্ত্রণ না নেওয়া পর্যন্ত আগুন নেভাতে পারছে না ফায়ার সার্ভিস।


এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। সংঘর্ষের ঘটনায় যাত্রাবাড়ী থানা থেকে কুতুবখালি পর্যন্ত মহাসড়ক বন্ধ রয়েছে। কয়েকটি মোটরসাইকেল ও সিএনজি পুড়িয়ে দিয়েছে আন্দোলনকরীরা। এর আগে যাত্রাবাড়ী থানায় হামলার ঘটনা ঘটে।

শাহবাগে সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা
                                  

রাজধানীর শাহবাগে সময় টেলিভিশনের সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় শাহবাগ থানায় একটি মামলা হয়েছে। তবে হামলাকারীরা কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী কি না তা উল্লেখ করা হয়নি। মামলার আসামি বলা হয়েছে ‘অজ্ঞাতদের’।


শনিবার (১৩ জুলাই) শাহবাগ থানায় মামলাটি হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তাজিরুর রহমান।

মামলার এজাহারে অপরাধী হিসেবে ‘অজ্ঞাতনামা অনেক সংখ্যক বিবাদী’র বিরুদ্ধে হত্যার উদ্দেশ্যে সাংবাদিকের ওপর হামলা, গতিরোধ, ক্ষতিসাধন ও ভয়ভীতি প্রদানের অভিযোগ আনা হয়েছে।

ওসি জানান, সময় টেলিভিশনের মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিভাগের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক সৈয়দ আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে এজাহার দায়ের করেছেন। এজাহারে অজ্ঞাত অনেককেই উল্লেখ করা হয়েছে।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ১১ জুলাই বিকেল ৬টা ২০ মিনিটের দিকে সময় টেলিভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ত্বোহা খান তামিম (৩৭) এবং ক্যামেরাম্যান সুমন সরকারকে (৩৬) উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। আন্দোলনকারীরা বলে ‘সময় টিভির ক্যামেরা ধর শালাকে’ এরপর আন্দোলনকারীরা সাংবাদিক ত্বোহা খান তামিম ও সুমনকে লক্ষ্য করে কয়েকটি বড় বড় ইট ছুড়ে মারতে থাকে, যার একটি তামিমের বাম হাতের ওপর এসে পড়ে।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, এ সময় আন্দোলনকারীরা সুমনের হাত থেকে ক্যামেরা ও সরাসরি সম্প্রচারের যন্ত্রটি কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করে ও সাংবাদিক তামিমের মাথার পরিহিত হেলমেট খুলে নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় সজোরে আঘাত করে। এছাড়া সাংবাদিক তামিম ও সুমনকে প্রাণনাশের বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদান করে আন্দোলনকারীরা।

বৃষ্টির পানিতে পড়ে থাকা তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু
                                  

রাজধানীর উত্তর ভাষানটেক এলাকায় বৃষ্টির পানিতে পড়ে থাকা তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আব্দুর নূর (৩৫) নামে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

ভাষানটেক থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) প্রণয় কৃষ্ণ মণ্ডল তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জানতে পেরেছি ১০৫ নম্বর উত্তর ভাষানটেক এলাকায় একটি বাসার নিচ তলায় বৃষ্টির পানি জমে ছিল। জলাবদ্ধ পানিতে বিদ্যুতের তার পড়ে ছিল। সেখান থেকে হেঁটে যাওয়ার সময় আব্দুর নূর বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অচেতন হয়ে পড়েন। পরে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত আব্দুর নূরের গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলার জামালপুর উপজেলায়। বর্তমানে ভাষানটেক এলাকায় থাকতেন।

আজও শাহবাগ অবরোধ কোটা আন্দোলনকারীদের
                                  

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশের বিভিন্ন স্থানে কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করেছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। এতে ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকেল ৫টার দিকে রাজধানীর শাহবাগে এই অবরোধ করেন তারা।

এসময় ‘আমার ভাই আহত কেন প্রশাসন জবাব চাই, আমার বোন আহত কেন প্রশাসন জবাব চাই’; ‘লাঠি শোঁটা টিয়ার গ্যাস রুখে দেওয়া যাবে না’; ‘কোটা না মেধা? মেধা মেধা’; ‘হাইকোর্টের রায় মানি না মানব না’; ‘কোটা বাতিল করো, বাতিল করো’; ‘ছাত্রসমাজ গড়বে দেশ’; ‘হামলা করে বন্ধ করা যাবে না, মামলা দিয়ে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না’; ‘মেধাভিত্তিক বাংলাদেশ করতে হবে করতে হবে’; ‘মুক্তিযুদ্ধের বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই’ ইত্যাদি নানা স্লোগানে ক্ষোভে ফেটে পড়তে দেখা যায় শিক্ষার্থীদেরকে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা এখন শাহবাগে কোটা সংস্কারের দাবিতে সমাবেশ এবং পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণার উদ্দেশ্যে এখানে সমবেত হয়েছেন।

এর আগে, কোটা সংস্কার আন্দোলনের অংশ হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের ব্যানারে মিছিলটি ঢাবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন দিক প্রদক্ষিণ করে শাহবাগে এসে জড়ো হয়।
গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকেল ৩টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার কোটবাড়ি বিশ্বরোড এলাকায় কোটা সংস্কার আন্দোলনের ব্লকেড কর্মসূচি ঘিরে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশ, সাংবাদিক, শিক্ষার্থীসহ অন্তত ২০ জন আহত হন।

ওইদিন বিকেল সোয়া ৫টার দিকে নগরীর টাইগারপাস মহাসড়কে ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি পালনে সড়ক ও রেলপথ অবরোধের সময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শিক্ষার্থীদের ওপর লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এতে কয়েকজন আহত হয়েছেন।

আষাঢ়ের বৃষ্টিতে ডুবল ঢাকার সড়ক-অলিগলি
                                  

আজ ২৮শে আষাঢ়। এদিন যে বৃষ্টি বাড়তে পারে তা আগেই জানিয়েছিল আবহাওয়া অফিস। আষাঢ়ের শেষ দিকের বৃষ্টি ঝরছে ঢাকার আকাশ থেকে। ভোর ৬টার দিকে শুরু হওয়া বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অলিগলিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় বাইরে কাজে বের হওয়া মানুষের সংখ্যা তুলনামূলক কম। সকালের বৃষ্টির শব্দে অনেকের ঘুম ভেঙেছে। তারপরেও যাদের কাজে বের হতে হয়েছে তারা পড়েছেন সীমাহীন ভোগান্তিতে। একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে জলাবদ্ধতার ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে তাদের।

সকাল থেকে ঝরা বৃষ্টির ফলে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের কিছু অংশ, মেরুল বাড্ডা, ডিআইটি প্রজেক্ট এলাকায়, মোহাম্মদপুর, ইসিবি, মালিবাগ, শান্তিনগর, সায়াদাবাদ, আগারগাঁও থেকে জাহাঙ্গীর গেট যেতে নতুন রাস্তায়, খামারবাড়ি থেকে ফার্মগেট, ফার্মগেট-তেজগাঁও ট্রাক স্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকা, শনির আখড়া, পুরান ঢাকা, বংশাল, নাজিমুদ্দিন রোড, ধানমন্ডি, মিরপুর ১৩, হাতিরঝিলের কিছু অংশ, গুলশান লেকপাড় এলাকার সংযোগ সড়কসহ বিভিন্ন সড়ক ও অলিগলিতে কিছু পরিমাণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।

সকাল সকাল কাজে বের হওয়া মানুষগুলোর মধ্যে একজন সিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, ভোর থেকে বলতে গেলে এই বৃষ্টি হচ্ছে। একে সাপ্তাহিক ছুটির দিন ও বৃষ্টির কারণে গণপরিবহন নেই বললেই চলে। বিভিন্ন সড়ক, অলিগলিতে হাঁটু পানি জমেছে। আমি কারওয়ান বাজার থেকে জরুরি একটি কাজে গুলশান এসেছি। মাঝপথে বিভিন্ন এলাকায় দেখলাম সড়কে পানি জমে গেছে।

এদিকে মোহাম্মদপুরের দিক থেকে বিজয় সরণি হয়ে তেজগাঁওয়ের মধ্য দিয়ে হাতিরঝিলে আসা নাজিম উদ্দিন নামের একজন সিএনজি চালক বলেন, আমি আসার পথে দেখলাম অনেক‌ রাস্তা, অলিগুলি পানিতে ডুবে গেছে। রাস্তার মধ্যে জমে থাকা পানির কারণে দুই একটা সিএনজি স্টার্ট বন্ধ হয়ে ঠেলতে দেখেছি। পূর্ব রাজধানীর সড়কগুলো ফাঁকা, সড়কে তেমন যানবাহন নেই, সেই সঙ্গে বাইরে কাজে বের হওয়া মানুষের সংখ্যাও হাতেগোনা। আর যারা বের হয়েছে তারা জলাবদ্ধতার ভোগান্তিতে পড়েছে।

রাজধানীর গাবতলীর দিক থেকে আসা বৈশাখী পরিবহন বাসের চালক রমজান মিয়া বলেন, ভোরবেলা থেকে বৃষ্টির কারণে বিভিন্ন সড়ক ডুবে আছে, বাইরে খুব একটা মানুষ নেই। গাবতলী থেকে ট্রিপ নিয়ে আসলাম পুরো ফাঁকা গাড়ি নিয়ে, এছাড়া রাস্তাতেও তেমন একটা মানুষের দেখা নেই। বৃষ্টির কারণে বেশিরভাগ রাস্তা ডুবে আছে।

এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, সারা দেশে আজ বৃষ্টি বাড়তে পারে, মেঘলা থাকতে পারে আকাশ। মৌসুমি বায়ু শক্তিশালী হয়ে ওঠায় এই বৃষ্টি বেড়েছে।

সকাল থেকে ঝুম বৃষ্টি ঢাকায়
                                  

মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সারাদেশে কমবেশি বৃষ্টি হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (১২ জুলাই) সকাল থেকে রাজধানী ঢাকায় শুরু হয়েছে ঝুম বৃষ্টি।

সকাল থেকেই ঢাকার আকাশ মেঘে ঢাকা। এদিন সকাল থেকে শুরু হয় ঝুম বৃষ্টি। আকাশে মেঘের গর্জনের সঙ্গে বৃষ্টিও বেড়েই চলছে। কমেছে তাপমাত্রা।

এদিকে বৃষ্টিতে ভোগান্তিতে পড়েছেন অফিসগামীসহ জরুরি কাজে বের হওয়া সাধারণ মানুষ। তবে বৃষ্টির কারণে গরম কমায় অনেকটা স্বস্তি পেয়েছেন নগরবাসী।

বৃষ্টিতে নগরীর অনেক প্রধান সড়কসহ অলিগলিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হতে দেখা গেছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন নগরবাসী। অনেকেই নিরুপায় হয়ে বৃষ্টিতে ভিজে গন্তব্যে ছুটেছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) অবশ্য ৪৮ ঘণ্টায় ভারী বর্ষণের সতর্কবাণী দিয়েছিল আবহাওয়া অফিস। দেশের পাঁচ বিভাগে ভারী বর্ষণের সঙ্গে দুই বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের সম্ভাবনার কথা জানায় সংস্থাটি।

সতর্কবাণীতে বলা হয়, বাংলাদেশের ওপর মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ৪৮ ঘণ্টায় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

এতে আরও বলা হয়, ভারী বর্ষণজনিত কারণে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের সম্ভাবনা রয়েছে।

কোটাবিরোধী আন্দোলন : ২০ টাকার রিকশাভাড়া ৫০
                                  

শিক্ষার্থীদের কোটাবিরোধী আন্দোলনের কারণে রাজধানীর বেশিরভাগ এলাকায় বন্ধ রয়েছে যান চলাচল। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে স্বল্প দূরত্বেও বেশি ভাড়া নিচ্ছেন রিকশাচালকরা। বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে শাহবাগের আশপাশের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে এ তথ্য জানা গেছে।

ভুক্তভোগী যাত্রীরা বলছেন, বন্ধ থাকা এক মোড় থেকে অন্য মোড়ে চলছে রিকশা। শাহবাগ থেকে মৎস ভবন পর্যন্ত সাধারণত রিকশা ভাড়া নেওয়া হতো ২০-৩০ টাকা। আন্দোলনের কারণে সব গাড়ি বন্ধ থাকায় শুধু এই জায়গার ভেতরেই রিকশা চলাচল করছে। কিন্তু এটুকুর মধ্যই ৫০ থেকে ৬০ টাকা পর্যন্ত ভাড়া চাওয়া হচ্ছে। তীব্র গরম থাকায় বাধ্য হয়েই সাধারণ যাত্রীদের এই ভাড়া দিয়েই যেতে হচ্ছে।

মহিউদ্দিন আলী নামের এক যাত্রী জানান, এই দেশে সবাই সুবিধাবাদী। একটু সুযোগ পেলে কেউই ছাড় দেয় না। আমরাতো সাধারণ মানুষ। আমাদের সব সয়ে গেছে। আমরা বাধ্য হয়েই যাচ্ছি।

মোকসেদ নবী নামের একজন রিকশাচালককে ভাড়া বেশি নেওয়ার কারণ জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, অবরোধের কারণে আজ সারাদিন সব বন্ধ থাকবে। আমরা যদি এটুকু জায়গায় গাড়ি না চালাতে পারি তাহলে আমাদের সারাদিন না খেয়ে থাকতে হবে। আমরা বাধ্য হয়েই ভাড়া চাচ্ছি, কেউ গেলে যাবে, না গেলে যাবে না।

তীব্র গরমে বাধ্য হয়েই অনেকে রিকশায় গেলেও বেশিরভাগ মানুষই গন্তব্যে যাচ্ছেন হেঁটে। কষ্ট ও ভোগান্তির কথা জানিয়েছেন তারাও। দ্রুত সমস্যা সমাধানের দাবিও জানান সাধারণ মানুষ।

গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট অবরোধ শিক্ষার্থীদের, যান চলাচল বন্ধ
                                  

রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকা গুলিস্তানের জিরো পয়েন্ট মোড় অবরোধ করেছে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। প্রশাসনের প্রাণকেন্দ্র সচিবালয় ঘেষা জিরো পয়েন্ট মোড় দিয়ে বিভিন্ন গন্তব্যে চলাচলকারী সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন হাজার হাজার যাত্রী।

বুধবার (১০ জুলাই) সকাল ১০টার পর শিক্ষার্থীরা জিরো পয়েন্ট মোড় দখলে নেন। তারা জিরো পয়েন্টের নূর হোসেন চত্বরকে ঘিরে সড়কগুলো বন্ধ করে অবস্থান নিয়েছেন। শিক্ষার্থীরা চারপাশে বৃত্তাকারে বসে পড়েছেন। একদল বৃত্তের ভেতরে রিকশায় থাকা মাইক নিয়ে ঘুরে ঘুরে স্লোগান দিচ্ছেন।

তারা বলছেন, ‘রাষ্ট্রের সংস্থার চলছে, সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখিত’ এবং কোটাবিরোধী নানা স্লোগান দিচ্ছেন। তবে অসুস্থ রোগীবাহী কোনো যানবাহন কিংবা অ্যাম্বুলেন্সকে তারা যাওয়ার সুযোগ দিচ্ছেন।

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ শ্যামপুর, জুরাইন, পুরোনো ঢাকার লোকজন ঢাকার অন্যান্য অংশের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য জিরো পয়েন্ট মোড় ব্যবহার করে থাকেন। বিভিন্ন দিক থেকে আসা গাড়িগুলোকে জিরো পয়েন্টের আশপাশের সড়কে থেমে থাকতে দেখা গেছে।

শিক্ষার্থীদের জিরো পয়েন্ট মোড় অবরোধ করার পর গুলিস্তানে মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারের থেকে নামা গাড়িগুলোকে টোল প্লাজা থেকে কিছুটা সামনে আটকে দেওয়া হয়েছে। কোনো গাড়ি সামনে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। তবে ইউটার্ন নিয়ে ফের ফ্লাইওভারে উঠতে কিংবা বঙ্গভবনের দিকে চলে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।

কোটা সংস্কারের আন্দোলনে ঘোষিত এক দফা কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আজ ঢাকাসহ সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা সর্বাত্মক ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি পালনের ডাক দিয়েছে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন। আন্দোলনকারীরা সরকারি চাকরির সব গ্রেডে অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে সংবিধানে উল্লিখিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য কোটাকে ন্যূনতম মাত্রায় এনে সংসদে আইন পাস করে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবি জানিয়েছে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা গান গেয়ে, কবিতা আবৃত্তির সঙ্গে স্লোগান দিয়ে যাচ্ছেন ক্রমাগত।

গুলিস্তান মোড়ে পল্টনের অংশে খালি গাড়িতে বসে গান শুনছিলেন ড্রাইভার মো. শাওন এবং সহযোগী সাইফুল ইসলাম। চালক শাওন বলেন, বেলা ১১টা থাইকা এহানে বইসা আছি। বাস আটকে দেওয়ার পর যাত্রীরা সব নাইমা গেছে। তবে ছাত্ররা বাসের কোনো ক্ষতি করেনি।‌ কখন এহান থেকে মুক্তি পামু আল্লাহই জানে।

যাত্রাবাড়ী থেকে কারওয়ান বাজার যাওয়ার জন্য বাসে উঠেছিলেন শরিফুল ইসলাম। তিনি গুলিস্তানে নেমে হাঁটছিলেন। শরিফুল বলেন, গুলিস্তান নেমে দেখি গাড়ি আর সামনে যায় না। পরে শুনলাম ছাত্ররা অবরোধ করছে। এখন সামনে হেঁটে গিয়ে দেখি কোনো গাড়ি পাই কিনা, নাহলে তো কারওয়ান বাজার হেঁটেই যেতে হবে।

শিক্ষার্থীরা আসার পর শাহবাগ ছাড়লো মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ
                                  

কোটাবিরোধী দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মিছিল শাহবাগ মোড়ে আসার পর পুলিশের অনুরোধে ওই এলাকা ছেড়েছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চসহ বেশ কয়েকটি সংগঠন।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর ১২টার কিছু আগে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা শাহবাগে মোড়ে এসে অবরোধ করলে পুলিশের অনুরোধে জাতীয় জাদুঘরের সামনে অবস্থানকারীরা চলে যান।

শিক্ষার্থীদের মিছিল আসার সময় জাতীয় জাদুঘরের সামনে অবস্থান করছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডসহ কয়েকটি সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এ সময় উভয়পক্ষকেই উত্তপ্ত স্লোগান দিতে দেখা যায়। এর আগে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে টিএসসি ঘুরে আসেন সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

ফলে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চসহ সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের সরে যেতে অনুরোধ করে পুলিশ।

এ সময় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীদের মাইকে হাইকোর্টের সামনে অবস্থান নেওয়ার জন্য বলা হয়। সংগঠনটির নেতারা বলেন, আমরা কোনোভাবেই মুক্তিযোদ্ধাদের অবমাননা, এ দেশের পতাকার অবমাননা মেনে নেবো না। আমরা আমরণ দাবি আদায় করে ছাড়বো। মুক্তিযোদ্ধাদের অধিকার কোটা বহাল রাখতেই হবে। আমরা এখন হাইকোর্ট মোড়ে চলে যাবো। আমরা হাইকোর্টের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করবো।

এরপর আবারো একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে টিএসসি হয়ে হাইকোর্টের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের সংগঠনগুলো।

ঢাকায় পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ২৪
                                  

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ বিভাগ।


বুধবার (১০ জুলাই) ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ডিএমপি জানায়, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ৩৭০ পিস ইয়াবা, ৮৪ গ্রাম হেরোইন ও ১৩ কেজি ৪৭০ গ্রাম গাঁজা জব্দ করা হয়।

ডিএমপির নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সকাল ছয়টা থেকে বুধবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ১৯টি মামলা রুজু হয়েছে।

স্বাক্ষর জাল করে রাস্তা খনন, ওয়াসার মালামাল জব্দ করল ডিএসসিসি
                                  


অনুমতি না নিয়ে এবং সই জাল করে রাস্তা খননের অভিযোগে খনন কাজে ব্যবহৃত ঢাকা ওয়াসার মালামাল জব্দ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

সোমবার (৮ জুলাই) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

এতে বলা হয়, অনুমতি না নিয়ে এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করে দক্ষিণ সিটির ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের লালবাগ শহীদ আবদুল আলীম খেলার মাঠ সংলগ্ন রাস্তা খনন করছিল ঢাকা ওয়াসা। এ বিষয়টি নজরে এলে করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা খনন এলাকায় যান। সেখানে খনন কাজে নিয়োজিত লোকজনের কাছে রাস্তা খননের অনুমতিপত্র দেখতে চাইলে তারা অনুমতিপত্রও দেখায়। পরে করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে খনন কাজের অনুমতি সম্পর্কে অবগত করা হলে তিনি অনুমতিপত্র দেখতে চান। তখনই বেরিয়ে আসে ঢাকা ওয়াসার জালিয়াতি!

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা দেখেন, তার স্বাক্ষর জাল করে ওয়াসার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা ভুয়া অনুমতিপত্র দেখিয়ে সেখানে রাস্তা খনন করছিলেন। ততক্ষণে অবস্থা বেগতিক দেখে সেখান থেকে সটকে পড়ে খনন কাজে নিয়োজিত ঢাকা ওয়াসার কর্মী ও তদারকিতে থাকা লোকজন। পরবর্তীতে এই খনন কাজে ব্যবহৃত মালামাল জব্দ করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

 

জব্দ মালামালের মধ্যে দুটি জেনারেটর, একটি ড্রিল মেশিন, দুটি অ্যালুমিনিয়াম বোল, দুটি সাবল, একটি কোদাল, একটি এলইডি লাইট এবং পাঁচটি হেলমেট রয়েছে।

এ বিষয়ে অঞ্চল-৩-এর আঞ্চলিক নির্বাহী প্রকৌশলী মিঠুন চন্দ্র শীল বলেন, ঢাকা ওয়াসা অনুমতি না নিয়ে লালবাগের শহীদ আবদুল আলীম খেলার মাঠ সংলগ্ন সড়ক খনন করছিল। এ বিষয়ে অবগত হলে আমাদের কর্মকর্তারা সেখানে যান।

মিঠুন চন্দ্র শীল বলেন, এ সময় সেখানে থাকা ঢাকা ওয়াসার লোকজন আমাদের কর্মকর্তাদেরকে আমার স্বাক্ষরিত সড়ক খননের একটি অনুমতিপত্র দেখায়। এ বিষয়ে সন্দেহ হলে তারা অনুমতিপত্রটি আমাকে পাঠায়। সেটি দেখেই আমি নিশ্চিত হই যে, আমার স্বাক্ষর জাল ও তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হলে তাদের লোকজন সেখান থেকে সরে যায়। এরপর খনন কাজে ব্যবহৃত সেসব মালামাল আমরা জব্দ করি।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু আমার স্বাক্ষর জাল ও তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে, সেহেতু এ বিষয়ে আমরা যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব। প্রয়োজনে মামলা করা হবে।

 

অবরোধে স্থবির মতিঝিল-পল্টন, মেট্রোয় উপচেপড়া ভিড়
                                  

ঢাকা: সরকারি চাকরির সব গ্রেডে যৌক্তিক পর্যায়ে কোটা সংস্কারের দাবিতে পুরানা পল্টন মোড়েও শিক্ষার্থীরা অবরোধ করছেন। যার প্রভাব পড়েছে মতিঝিল-পল্টন ও আশপাশের এলাকায়।

কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরা মানুষ বাস কিংবা অন্যান্য পরিবহন ব্যবহার করতে পারছেন না। যে কারণে, সব স্তরের কর্মজীবীরা এখন চলাচল করছেন মেট্রোরেলে।
যে কারণে বৈদ্যুতিক ব্যবস্থায় পরিচালিত এ পরিবহনে উপচেপড়া ভিড় দেখা যাচ্ছে। সোমবার (৮ জুলাই) বিকেল ৪টা থেকে মেট্রোরেলের মতিঝিল অংশ থেকে প্রচণ্ড ভিড় দেখা গেছে। শুধু মতিঝিল স্টেশনেই নয়, যাত্রীজট দেখা যায় বাংলাদেশ সচিবালয় স্টেশনেও।

মতিঝিল থেকে মেট্রো রেলে উঠেছিলেন কামরুজ্জামান সোহাগ নামে এক যাত্রী। তিনি জানিয়েছেন, বিকেল ৩টায় তিনি মতিঝিল মেট্রোরেল স্টেশনে আসেন মিরপুর-১১ নম্বরে যাবেন বলে। মেট্রোয় উঠতে পেরেছেন বিকাল সোয়া চারটায়। যে সময় উঠেছেন, সে সময় বগিগুলোয় তিল ধারণের জায়গা ছিল না। অনেক কষ্টে অন্যান্য যাত্রীদের ঠেলে ট্রেনে ওঠেন। সচিবালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহবাগ, কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট পর্যন্ত মেট্রোরেলে ভয়াবহ রকমের যাত্রীজট ছিল। ট্রেনে এসি চললেও মানুষের শরীরের তাপে পরিবেশ গরম হয়ে উঠছিল। বিজয় সরণির পর থেকে কিছুটা যাত্রীজট কমে। মিরপুর ১১ পর্যন্ত আসার পর অল্প কয়েকজন সিটে বসতে পেরেছেন।

এর আগে মতিঝিল স্টেশনে দেখা যায়- টিকিট কাউন্টার, টিউশন কম্পার্টমেন্টসহ প্রায় সব জায়গায় যাত্রী ঠাসা। একটি ট্রেন এলেই শ’য়ে শ’য়ে মানুষ ওঠার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। ১০ মিনিট পর পর ট্রেন এলেও রেল কম্পার্টমেন্ট থেকে যাত্রীদের স্রোত কমছে না।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে, উদ্বোধনের পর কখনও দিনে এত বেশি যাত্রী তারা দেখেননি। যাত্রীদের চাপে র‌্যাপিড ও এমআরটি রিডার মেশিনগুলো হ্যাং করছে।

বসিকুল ইসলাম নামে মোহাম্মদপুরের এক বাসিন্দা জানান, তিনি সাধারণত বাসে যাতায়াত করেন। পল্টনে অবরোধের কারণে বাস চলাচল করতে পারছে না। বাধ্য হয়ে মেট্রোরেলে উঠেছেন তিনি। আগারগাঁও নেমে সেখান থেকে অন্য পরিবহনে বাসায় ফিরবেন তিনি।

মতিঝিল থেকে সাভার যাবেন আব্দুল হাই। কিন্তু কোনোভাবেই বাসে যেতে পারছেন না। গত বৃহস্পতিবার না জেনে বাসে চড়ায় শাহবাগেই ৪ ঘণ্টা আটকে ছিলেন। আজ মেট্রোয় উঠেছেন। মিরপুর ১০ নম্বরে নেমে সেখান থেকে সাভারের বাসে চড়বেন।

পল্টন মোড়ে ছাত্রদের অবরোধের কারণে সোহাগ, বসিক, আব্দুল হাইয়ের মতো হাজারো যাত্রী ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। যারা মতিঝিল থেকে পল্টন যাতায়াত করছেন, তারাও ‘দেরির শিকার’ হচ্ছেন।


   Page 1 of 87
     রাজধানী
হানিফ ফ্লাইওভারে সংঘর্ষ, গুলিতে নিহত ১
.............................................................................................
যাত্রাবাড়ীতে মহাসড়ক পুরোপুরি বন্ধ, ভোগান্তি চরমে
.............................................................................................
আমরা ধৈর্যের পরীক্ষা দিচ্ছি: র‌্যাব
.............................................................................................
শনির আখড়া ও দনিয়ায় সংঘর্ষ, শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ৬
.............................................................................................
দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্র যাত্রাবাড়ী, টোল প্লাজায় আগুন
.............................................................................................
শাহবাগে সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা
.............................................................................................
বৃষ্টির পানিতে পড়ে থাকা তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু
.............................................................................................
আজও শাহবাগ অবরোধ কোটা আন্দোলনকারীদের
.............................................................................................
আষাঢ়ের বৃষ্টিতে ডুবল ঢাকার সড়ক-অলিগলি
.............................................................................................
সকাল থেকে ঝুম বৃষ্টি ঢাকায়
.............................................................................................
কোটাবিরোধী আন্দোলন : ২০ টাকার রিকশাভাড়া ৫০
.............................................................................................
গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট অবরোধ শিক্ষার্থীদের, যান চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
শিক্ষার্থীরা আসার পর শাহবাগ ছাড়লো মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ
.............................................................................................
ঢাকায় পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ২৪
.............................................................................................
স্বাক্ষর জাল করে রাস্তা খনন, ওয়াসার মালামাল জব্দ করল ডিএসসিসি
.............................................................................................
অবরোধে স্থবির মতিঝিল-পল্টন, মেট্রোয় উপচেপড়া ভিড়
.............................................................................................
আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে সায়েন্সল্যাব ছাড়লেন শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
শাহবাগ-নীলক্ষেতের পর এবার বাংলামোটর অবরোধ
.............................................................................................
কোটা বাতিলের দাবিতে সায়েন্সল্যাব মোড় অবরোধ, যান চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
কোটা বাতিলের দাবীতে অবরোধ, শাহবাগে যানচলাচল বন্ধ
.............................................................................................
রাজধানীতে তীব্র গ্যাস সংকট
.............................................................................................
শাহজালাল বিমানবন্দরে সাড়ে ৪ কোটি টাকার সোনা জব্দ
.............................................................................................
সকাল থেকে বৃষ্টি, ভয়াবহ যানজটের কবলে রাজধানীবাসী
.............................................................................................
রাজধানী ঢাকার সাভারে প্রতারণার শিকার ভুক্তভোগীদের মানববন্ধন
.............................................................................................
বেকারদের কর্মসংস্থানে নির্বাচনী অঙ্গীকার পূরণ করবে আ.লীগ
.............................................................................................
রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
.............................................................................................
ছাগলকাণ্ড: এবার সেই সাদিক এগ্রোতে অভিযান
.............................................................................................
ধানমন্ডিতে মালবোঝাই ট্রাক উল্টে দুমড়েমুচড়ে গেল মাইক্রোবাস
.............................................................................................
বোতলজাত পানির মূল্যবৃদ্ধি অযৌক্তিক ও অন্যায্য
.............................................................................................
ঢাকামুখী মানুষের চাপ বাড়ছে গাবতলীতে
.............................................................................................
যাত্রাবাড়ীতে দম্পতিকে গলা কেটে হত্যা
.............................................................................................
ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছে কর্মজীবী মানুষ
.............................................................................................
৬০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে কোরবানির মাংস
.............................................................................................
পুরানা পল্টনে ১৫ তলা ভবনে অগ্নিকাণ্ড, নারী হাসপাতালে
.............................................................................................
বছিলা হাটে আসতে শুরু করেছে কোরবানির পশু
.............................................................................................
ধর্ষণ মামলায় টিকটকার প্রিন্স মামুন গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজধানীতে রান্নাঘরে বিস্ফোরণে নারী-শিশুসহ দগ্ধ ৪
.............................................................................................
নয়াপল্টনে একটি বাড়ি ঘিরে রেখেছে র‍্যাব
.............................................................................................
‘শালা নাটক করতাসে’, সহকর্মীকে হত্যার পর কনস্টেবল কাউসার
.............................................................................................
‘কনস্টেবলের গুলিতে কনস্টেবল নিহত’ যা বললেন আইজিপি
.............................................................................................
গুলশানে পুলিশের গুলিতে পুলিশ সদস্য নিহত
.............................................................................................
‘জয় বাংলা ম্যারাথন ২০২৪’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন
.............................................................................................
হানিফ ফ্লাইওভারে যুবক নিহত
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ২২
.............................................................................................
কেড়ে নিতে চাইছিল রিকশাচালকের সর্বস্ব, বাধা দেওয়ায় এসআইকে আক্রমণ করে হিজড়ারা
.............................................................................................
ফার্মগেটে আনোয়ারা উদ্যানে কোনো স্থাপনা নয়: মেয়র আতিকুল
.............................................................................................
ডেমরায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, দগ্ধ ৭
.............................................................................................
আজ গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়
.............................................................................................
ঢাকা উত্তর সিটির ৯৪টি স্থানে জমে থাকা পানি অপসারণ
.............................................................................................
রাজধানীতে বৃষ্টির সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ৪
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: [email protected]
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD