বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * গণপরিবহন সংকটে দুর্ভোগ   * উত্তরপ্রদেশে ব্যাপক বন্যা, ২৪ ঘণ্টায় নিহত ১০   * কমপ্লিট শাটডাউনেও বাস চালানোর নির্দেশনা   * ঢাকায় ১৬ প্লাটুন আনসার ব্যাটালিয়ন মোতায়েন   * কমপ্লিট শাটডাউন ঘিরে কাউকে সহিংসতা করতে দেওয়া হবে না   * আজ সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’   * দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্র যাত্রাবাড়ী, টোল প্লাজায় আগুন   * প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী   * কোটা সংস্কার আন্দোলন : বৃহস্পতিবার সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঘোষণা   * সাম্য, ন্যায়ভিত্তিক ও শান্তিপূর্ণ সমাজ প্রতিষ্ঠার আহ্বান রাষ্ট্রপতির  

   অপরাধ ও অনিয়ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
নোয়াখালীতে ৪ হাজার কেজি চিনিসহ পিকআপ চালক গ্রেপ্তার

নোয়াখালীর চাটখিলে ৮০ বস্তা ভারতীয় চিনিসহ এক পিকআপ চালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় চিনি পরিবহনে ব্যবহৃত একটি পিকআপ জব্দ করা হয়।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বিকেলের দিকে আসামিকে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে, সোমবার রাতে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পরানপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার রিয়াদ হোসেন (৩২) চাটখিল উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নোয়াখলা গ্রামের আরিফুর রহমানের ছেলে।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইমদাদুল হক।

তিনি বলেন, সোমবার গভীর রাতে উপজেলার পরানপুর এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে একটি পিকআপ তল্লাশি করে ৮০টি বস্তায় থাকায় ৪ হাজার কেজি ভারতীয় চিনি জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় পিকআপ চালককে চোরাচালান মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

নোয়াখালীতে ৪ হাজার কেজি চিনিসহ পিকআপ চালক গ্রেপ্তার
                                  

নোয়াখালীর চাটখিলে ৮০ বস্তা ভারতীয় চিনিসহ এক পিকআপ চালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় চিনি পরিবহনে ব্যবহৃত একটি পিকআপ জব্দ করা হয়।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বিকেলের দিকে আসামিকে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে, সোমবার রাতে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পরানপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার রিয়াদ হোসেন (৩২) চাটখিল উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নোয়াখলা গ্রামের আরিফুর রহমানের ছেলে।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইমদাদুল হক।

তিনি বলেন, সোমবার গভীর রাতে উপজেলার পরানপুর এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে একটি পিকআপ তল্লাশি করে ৮০টি বস্তায় থাকায় ৪ হাজার কেজি ভারতীয় চিনি জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় পিকআপ চালককে চোরাচালান মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

৬ লাখ টাকা নিয়ে উধাও কর্মসংস্থান ব্যাংকের নিরাপত্তারক্ষী
                                  

কর্মসংস্থান ব্যাংকের চাঁদপুর হাজীগঞ্জ উপজেলার আলীগঞ্জ শাখার নিরাপত্তারক্ষী পাঁচ লাখ ৭৯ হাজার ৩৩০ টাকা নিয়ে উধাও হয়েছেন। এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন ব্যাংক ম্যানেজার হাসিনা বেগম।

নিখোঁজ নিরাপত্তারক্ষী বাবুল হোসেন পাটোয়ারী শাহরাস্তি উপজেলার গোলপুরা পাটোয়ারী বাড়ির বাসিন্দা।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুর রশিদ।

নিখোঁজ ডায়েরিতে ম্যানেজার উল্লেখ করেন, বুধবার (৩ জুলাই) বিকেলে প্রতিদিনের মতো নিরাপত্তারক্ষী বাবুল হোসেন পাটোয়ারীকে ব্যাংকের অবশিষ্ট টাকা হাজীগঞ্জ বাজারের জনতা ব্যাংকে জমা দেওয়ার জন্য পাঠানো হয়। কিন্তু ব্যাংকে কোনও টাকা জমা হয়নি। তারও কোনও খোঁজ মেলেনি।

এদিকে, নিরাপত্তারক্ষীর মাধ্যমে টাকা প্রেরণের প্রসঙ্গে জনবল সংকটের কথা জানান ব্যাংকের ম্যানেজার।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি আবদুর রশিদ জানান, তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে নিরাপত্তারক্ষী বাবুল হোসেনকে শনাক্তকরণের কাজ চলছে।

মতিউরের ৪ ফ্ল্যাট, ৮৬৬ শতাংশ জমি জব্দের নির্দেশ
                                  

ছাগলকাণ্ডে আলোচিত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সদস্য মতিউর রহমানের ৪টি ফ্ল্যাট ও ৮৬৬ শতাংশ জমি জব্দের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) ঢাকা মেট্রোপলিটন সিনিয়র স্পেশাল জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এই আদেশ দেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মীর আহমেদ আলী সালাম এই তথ্য জানিয়েছেন।

উপকূল ট্রেনে পাথর ছুড়ে গ্লাস ভাঙচুর
                                  

ঢাকা থেকে নোয়াখালীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া আন্তঃনগর উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনে পাথর ছুড়ে দুটি জানালার কাচ ভাঙচুরের খবর পাওয়া গেছে। এসময় যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

বুধবার (৩ জুলাই) রাত ১০টায় ট্রেনটি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী স্টেশনে পৌঁছালে এ ঘটনা ঘটে। এতে ট্রেনের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বগির দুটি জানালার কাচ ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী যাত্রীরা জানান, ট্রেনটি সোনাইমুড়ী স্টেশনে পৌঁছার সঙ্গে সঙ্গে একদল দুর্বৃত্ত শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ‌‘ক’ বগি লক্ষ্য করে অনবরত পাথর ছুড়তে থাকে। এতে দুটি জানালার কাঁচ ভেঙে বগিতে ছড়িয়ে পড়ে। তবে ওই জানালাগুলোর পাশে কোনো যাত্রী না থাকায় কেউ হতাহত হয়নি। এর আগে বিকেল ৩টা ট্রেনটি ঢাকার কমলাপুর থেকে ছেড়ে আসে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রেলকর্মীরা জানান, প্রতি মাসে কয়েকবার সোনাইমুড়ী, বজরাসহ আশপাশের এলাকায় এ ধরনের হামলার ঘটনা ঘটে। তাদের দাবি, বাসমালিকদের যোগসাজশে আতঙ্ক সৃষ্টি করে ট্রেনের যাত্রী কমানোর জন্য এমন ঘটনা ঘটানো হয়।

রেলওয়ের নোয়াখালী স্টেশন মাস্টার মো. আসাদুজ্জামান হামলার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, কারা কী উদ্দেশ্যে এ হামলা চালিয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বিষয়টি রেলওয়ে পুলিশকে জানানো হয়েছে। আপাতত প্লাস্টিক দিয়ে জানালা দুটি ঢেকে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় ট্রেনটি যথা নিয়মে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।

মতিউর ও তার পরিবারের সম্পদের খোঁজে বিভিন্ন দপ্তরে দুদকের চিঠি
                                  

ঢাকা: ছাগলকাণ্ডে আলোচিত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তা মতিউর রহমান ও তার পরিবারের সম্পদের খোঁজে বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রোববার (৩০ জুন) দুদক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

দুদক সূত্র জানায়, মতিউর ও তার পরিবারের সদস্যদের সম্পদের তথ্য চেয়ে এনবিআর, বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ), নিবন্ধন অধিদপ্তর, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ এবং যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তরে চিঠি দিয়েছে দুদক।

এরআগে, দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২৪ জুন মতিউর রহমান, তার স্ত্রী কলেজশিক্ষক লায়লা কানিজ এবং ছেলে আহম্মেদ তৌফিকুর রহমান অর্ণবের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত।

কোরবানির ঈদে ঢাকার সাদিক অ্যাগ্রো থেকে ১৫ লাখ টাকার একটি ছাগল কিনতে গিয়ে আলোচনার জন্ম দেন মতিউর রহমানের ছেলে মুশফিকুর রহমান ইফাত। তবে শুরুতে ইফাতকে ছেলে হিসেবে অস্বীকার করেন মতিউর রহমান।

এ বিষয়ে মতিউর রহমান গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, ইফাত নামে আমার কোনো ছেলে নেই। এমনকি আত্মীয় বা পরিচিতও কেউ নন। আমার একমাত্র ছেলের নাম তৌফিকুর রহমান। একটি গোষ্ঠী আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে। সামাজিক মাধ্যমে আমার ছবি ও নাম ব্যবহার করায় আমি বিব্রত। আমি অবশ্যই আইনি পদক্ষেপে যাব।

এসব ঘটনা আলোচনায় আসার পর মতিউর রহমানকে কাস্টমস, এক্সসাইজ ও ভ্যাট অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনালের প্রেসিডেন্ট পদ থেকে প্রত্যাহার করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে। একইসঙ্গে তাকে সোনালী ব্যাংকের পরিচালক পদ থেকেও অপসারণ করা হয়।

 

লাকড়ি পোড়ানোয় ইট ভাটা বন্ধ, জরিমানা ৩ লাখ
                                  

পরিবেশ আইন তোয়াক্কা না করে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে কয়লার বদলে কাঠ (লাকড়ি) পোড়ানো ও মজুত রাখার অপরাধে কবির ব্রিকস নামে একটি ইট ভাটাকে তিন লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একইসঙ্গে ইট ভাটাটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

সোমবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ। অভিযানে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাহিমা বিনতে আখতারসহ থানা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ জানান, ভূঞাপুর-টাঙ্গাইল আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে কবির ব্রিকসে ইট পোড়ানোর জন্য বিপুল পরিমাণ ব্যবহার নিষিদ্ধ লাকড়ি মজুত রাখা হয়েছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই ইট ভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এ সময় বিপুল পরিমাণ লাকড়ি জব্দসহ ইট ভাটা মালিককে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। একইসঙ্গে ইট ভাটার কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

‘সম্পদের পাহাড়’ ছেড়ে আত্মগোপনে ছাগলকাণ্ডের মতিউরের স্ত্রী
                                  

মুশফিকুর রহমান (ইফাত) নামের এক তরুণের ১২ লাখ টাকা দিয়ে ছাগল কেনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে আলোচনায় আসেন ওই তরুণের বাবা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সদস্য মতিউর রহমান। রোববার (২৩ জুন) তাকে এনবিআর থেকে সরিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে। এসবের জেরে এখন আলোচনায় মতিউর রহমানের প্রথম স্ত্রী নরসিংদীর রায়পুরার উপজেলা চেয়ারম্যান লায়লা কানিজ লাকী।

গত কয়েকদিন ধরে তিনি আত্মগোপনে চলে গেছেন। তাকে কোথাও দেখা যাচ্ছে না, ফোন কলেও পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি তিনি এখন কোথায় আছেন, তাও কেউ বলতে পারছে না। কিন্তু তিনি কেন আত্মগোপনে? তাহলে কি তার গড়া সম্পদও অবৈধ? এমন নানা প্রশ্ন জনমনে ঘুরপাক খাচ্ছে।

উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তারা বলছেন, ঈদের দুই দিন আগে সর্বশেষ অফিস করেছেন লায়লা কানিজ লাকী। ঈদের ছুটি শেষে এ পর্যন্ত একবারের জন্যও কার্যালয়ে আসেননি তিনি। তাদের ধারণা, তিনি ছাগলকাণ্ডে বেশ বিব্রত। সাংবাদিকেরাও বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর পেতে তার কার্যালয়ে এসে খোঁজাখুঁজি করছেন।

রায়পুরার ইউএনও ইকবাল হাসান বলেন, ঈদের পর উপজেলা চেয়ারম্যান লায়লা কানিজ তার কার্যালয়ে আসেননি। রোববার সকালে অনুষ্ঠিত উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভাতেও তিনি অংশ নেননি। ব্যক্তিগত কারণে তিনি আজ আসতে পারবেন না জানিয়ে ছিলেন। কিন্তু কবে আসবেন তা বলেননি, কোনো ছুটিও নেননি।

জানা গেছে, লায়লা কানিজ লাকী ছিলেন রাজধানীর তিতুমির সরকারি কলেজের বাংলা বিষয়ের সহযোগী অধ্যাপক। শিক্ষকতার পাশাপাশি রায়পুরা উপজেলার মরজালে নিজ এলাকায় প্রায় দেড় একর জমিতে ‘ওয়ান্ডার পার্ক ও ইকো রিসোর্ট’ নামের একটি বিনোদন কেন্দ্র গড়ে তুলেন তিনি। সেখানেই ২০১৮ সালে পরিচয় হয় স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজিউদ্দিন আহমেদের। এরপর থেকে দিনের পর দিন রাজিউদ্দিন আহমেদ ওই পার্কে অবকাশযাপন করতে যেতেন, একপর্যায়ে লায়লা কানিজকে রাজনীতিতে আমন্ত্রণ জানান তিনি। ২০২৩ সালে উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছাদেক মারা গেলে স্বেচ্ছায় চাকরি ছেড়ে উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হন এবং সংসদ সদস্যের প্রভাবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হন লায়লা কানিজ। পরবর্তীতে জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির তিনি দুর্যোগ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলছেন, শুধুমাত্র অবৈধ টাকার জোরেই লায়লা কানিজ লাকী স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজুর পৃষ্ঠপোষকতায় রায়পুরার রাজনীতিতে সুযোগ পেয়েছেন। এ সব টাকা সবই তার স্বামী আলোচিত রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমানের অবৈধ উপার্জনের টাকা। শিক্ষকতার আয়ে তার এত সম্পদ থাকার কথা নয়। তাকে জোর করে রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত করায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের ত্যাগী নেতারা এখন কোনঠাসা। তার এই অবৈধ টাকার জোরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকেও বিভক্ত করেছে। অবস্থা এখন এমন যে, সংসদ সদস্য এবং তিনি একটি পক্ষ আর সব আওয়ামী লীগ নেতা আরেক পক্ষ। সংসদ সদস্যের সহযোগিতায় নরসিংদীর সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নও চেয়েছিলেন তিনি।

অধ্যাপিকা থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া লায়লা কানিজের নামে প্রচুর সম্পদ। তার নির্বাচনী হলফনামা থেকে জানা গেছে, তার বাৎসরিক আয় কৃষিখাত থেকে ১৮ লাখ, বাড়ি-অ্যাপার্টমেন্ট-দোকান ও অন্যান্য ভাড়া থেকে ৯ লাখ ৯০ হাজার, শেয়ার-সঞ্চয়পত্র-ব্যাংক আমানতের লভ্যাংশ থেকে ৩ লাখ ৮২ হাজার ৫০০, উপজেলা চেয়ারম্যানের সম্মানী বাবদ ১ লাখ ৬৩ হাজার ৮৭৫, ব্যাংক সুদ থেকে ১ লাখ ১৮ হাজার ৯৩৯ টাকা। বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে তার জমা রয়েছে ৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। তার কৃষিজমির পরিমান ১৫৪ শতাংশ, তার অকৃষিজমির মধ্যে রয়েছে রাজউকে পাঁচ কাঠা, সাভারে সাড়ে ৮ কাঠা, গাজীপুরে ৫ কাঠা, গাজীপুরের পুবাইলে ৬ দশমিক ৬০ শতাংশ ও ২ দশমিক ৯০ শতাংশ, গাজীপুরের খিলগাঁওয়ে ৫ শতাংশ ও ৩৪ দশমিক ৫৫ শতাংশ, গাজীপুরের বাহাদুরপুরে ২৭ শতাংশ, গাজীপুরের মেঘদুবীতে ৬ দশমিক ৬০ শতাংশ, গাজীপুরের ধোপাপাড়ায় ১৭ শতাংশ, রায়পুরায় ৩৫ শতাংশ, ৩৫ শতাংশ ও ৩৩ শতাংশ, রায়পুরার মরজালে ১৩৩ শতাংশ, সোয়া ৫ শতাংশ, ৮ দশমিক ৭৫ শতাংশ, ২৬ দশমিক ২৫ শতাংশ ও ৪৫ শতাংশ, শিবপুরে ২৭ শতাংশ ও ১৬ দশমিক ১৮ শতাংশ, শিবপুরের যোশরে সাড়ে ৪৪ শতাংশ, নাটোরের সিংড়ায় ১ একর ৬৬ শতাংশ। লায়লা কানিজ লাকির ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র বলছে, তিনি তার মোট সম্পত্তির মাত্র অর্ধেকেরও কম দেখিয়েছেন হলফনামায়।

মরজাল বাসস্ট্যান্ড থেকে এক কিলোমিটার দূরত্বে মতিউর রহমান ও লায়লা কানিজ লাকী দম্পতির আধুনিক স্থাপত্যের ডুপ্লেক্স বাড়ি। কয়েক কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত আধুনিক স্থাপত্যের বাড়িটি বেশ বিলাসবহুল। বাড়িজুড়ে দেশি-বিদেশি গাছের সারি, সবুজ ঘাসের আঙিনা। পেছনে রয়েছে সান বাঁধানো ঘাট ও লেক। পাশে রয়েছে কর্মচারীদের থাকার জায়গা। বাড়িটির ভেতরে প্রবেশ করেছেন, এমন কয়েকজন জানান, বাড়িটিতে মতিউর রহমান মাঝেমধ্যে আসলেও প্রায় সবসময়ই লায়লা কানিজ থাকেন। এর ভেতরে রাজকীয় সব আসবাবপত্র ও দামী জিনিসপত্রে ঠাসা।

ওয়ান্ডার পার্ক ও ইকো রিসোর্টে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দেড় একর বা তার বেশি আয়তনজুড়ে রয়েছে পার্কটির অবস্থান। ভেতরে রয়েছে বিলাসবহুল একাধিক কটেজ। বিভিন্ন বয়সীদের জন্য রয়েছে বেশকিছু রাইড। পুরো পার্কজুড়ে বিভিন্ন ভাস্কর্য ও স্থাপনা। প্রতিদিন শত শত মানুষ এই পার্কে ঘুরতে আসেন। এটি স্থানীয়দের কাছে উপজেলা চেয়ারম্যান লায়লা কানিজ লাকীর পার্ক বলে প্রচারণা আছে। তবে ছাগলকাণ্ডের পর পার্কের লোকজন তা `লাকীর পার্ক` হিসেবে অস্বীকার করছে। তবে লায়লা কানিজের দুই সন্তান যে এর পরিচালক, তা নিশ্চিত করেছেন তারা।

পার্কটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক পরিচয় দেওয়া আবুল খায়ের মানিক নামের একজন জানান, লায়লা কানিজ পার্কের ভেতরের শুধু পুকুরের মালিক। তবে পরিচালক হিসেবে রয়েছেন মতিউর-লায়লা দম্পতির দুই সন্তান।

এদিকে নরসিংদী শহরের নাগরিয়াকান্দিতে গোল্ডেন স্টার পার্ক নামের অর্ধনির্মিত একটি বিনোদন কেন্দ্রে লায়লা কানিজ লাকী পার্টনার হিসেবে রয়েছেন বলে জনশ্রুতি রয়েছে। ওই পার্কটির ব্যাবস্থাপনা পরিচালক বাদল সরকারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ পার্কের সঙ্গে লায়লা কানিজ লাকী ও তার স্বামী মতিউর রহমানের কোনো মালিকানার সম্পর্ক নেই। ছাগলকাণ্ডে তাদের নাম চলে আসায় টিভি-পত্রিকায় তাদের দেখেছি, কিন্তু কোনদিন তাদের নিজের চোখে দেখিনি।

স্থানীয়রা বলছেন, লায়লা কানিজের বাবা কফিল উদ্দিন আহম্মদ ছিলেন একজন খাদ্য কর্মকর্তা। তার চার মেয়ে ও দুই ছেলের মধ্যে লায়লা কানিজ সবার বড়। সরকারি কলেজে শিক্ষকতা করলেও রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমানের সঙ্গে বিয়ের পর তার ভাগ্য খুলে যায়। গত ১৫ বছরে তার সম্পদ লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে। সংসদ সদস্য রাজিউদ্দিন আহমেদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার পর থেকে তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয় নি। পৈত্রিক বাড়িতে রাজপ্রাসাদতুল্য একটি তিনতলা ভবন নির্মাণ করেছেন তিনি। ছোট পার্কটিকে ক্রমে ক্রমে আধুনিক করে ইকো রিসোর্ট তৈরি করেছেন। এলাকায় তিনি প্রচুর দান-খয়রাতও করেন। উপজেলা চেয়ারম্যান হওয়ার পর থেকে তিনি রায়পুরার রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ একজন হয়ে উঠেছেন।

মরজাল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সানজিদা সুলতানা নাসিমা বলেন, লায়লা কানিজ লাকি এই অর্থ দিয়ে দিনকে রাত আর রাতকে দিন বানিয়ে মানুষকে হয়রানি করছে। আর এমপি রাজু সাহেবের মত লোক তাদের ভক্ত হয়ে গেছে।

রায়পুরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফজাল হোসাইন বলেন, দুঃখের কথা কি আর বলবো? এমপি সাহেবের উৎসাহেই রাজনীতিতে এসেছেন লায়লা কানিজ। তিনি একটা টাকার পাহাড়। স্বামীর অবৈধ টাকার প্রভাবেই এমপি সাহেব তাকে গুরুত্ব দিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান বানিয়েছেন। তিনি প্রভাব খাটিয়েছিলেন, যেন তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করেন। দলে কি আর কোন নেতা ছিল না?

তিনি আরও বলেন, গত ৫৫ বছর ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। আমাকে পর্যন্ত প্রার্থী হতে দেওয়া হয়নি। বলা হয়েছিল, আপনার তো টাকা নাই, নির্বাচন কিভাবে করবেন? শুধু সমর্থন চেয়েছিলাম, তাও পাইনি। লায়লা কানিজকে রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত করতে গিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের খুব বড় ক্ষতি করে ফেলেছেন সংসদ সদস্য রাজিউদ্দীন আহমেদ। এর জন্য ভবিষ্যতে আমাদের মূল্য দিতে হবে। টাকাই কি সব? আর এসব টাকা তো তার নিজের নয়, স্বামী মতিউর রহমানের।

সূত্র : ঢাকা পোস্ট

সেই ইফাত আরও ৭০ লাখ টাকার গরু কিনেছিলেন যেখান থেকে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঈদ শেষ হলেও সাদিক এগ্রোর ১৫ লাখ টাকার কথিত ছাগলের ক্রেতা মুশফিকুর রহমান ইফাতকে নিয়ে আলোচনা ধরে রেখেছে কুরবানির আমেজ। একদিকে ইফাতের পরিচয় নিয়ে যেমন তৈরি হয়েছে জটিলতা, অপরদিকে সাদিক এগ্রোর কথিত ‘বিক্রি নাটক’ নিয়েও চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

ঈদুল আজহার আগে ১৫ লাখ টাকায় একটি ছাগল কিনে আলোচনায় আসেন মুশফিকুর রহমান ইফাত। পরে তার বাবার পরিচয় নিয়ে সংবাদ প্রকাশ এবং সাদিক এগ্রোর স্বীকারোক্তি। সবগুলো বিষয় নিয়েই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক এবং সংবাদ মাধ্যমে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

এবার জানা গেল ইফাতের কুরবানি বিলাসিতা। ঈদে ইফাত রাজধানীর মোহাম্মদপুরের সাদিক এগ্রো থেকে একটি ছাগল ছাড়াও ঢাকার বেশ কয়েকটি খামার ও হাট থেকে ৭০ লাখ টাকার গরু কিনেছেন।

ঢাকার আশেপাশে বেশ কয়েকটি খামারে যোগাযোগ করা হলে উঠে আসে ইফাতের কুরবানি বিলাসিতার কথা।

জানা যায়, ঢাকার আশেপাশে অন্তত সাতটি খামার থেকে ৭০ লাখ টাকার গরু কিনেছিলেন ইফাত। তবে ফেসবুকে বিতর্কের মুখে সাদিক এগ্রো থেকে কেনা ওই ছাগল তিনি আর বাসায় নেননি। তবে অন্য খামার ও একটি হাট থেকে কেনা পশু তিনি ডেলিভারি নিয়েছেন।

জানা যায়, সাদিক এগ্রো ছাড়াও ঢাকার আশেপাশের পরিচিত এগ্রো সামারাই, রাহমাহ ক্যাটেল ফার্ম, ব্রাউনিজ, হাম্বা পাগলা এগ্রো অ্যান্ড ডেইরি ফার্ম, সারা এগ্রো, বুদ্দু ক্যাটেল ফার্ম এবং গাবতলী হাট থেকে সব মিলিয়ে ৭০ লাখ টাকার পশু কিনেছিলেন।

এক খামার থেকে ক্রয় করেন ১৭ লাখ টাকায় একটি গরু। আর গাবতলী হাট থেকে কিনেছেন ১ লাখ ৫৪ হাজার টাকার গরু। বাকিগুলো পশু বিভিন্ন ফার্ম থেকে ক্রয় করেন ইফাত।

ইফাতকে খোঁজ করতে রাজধানীর ধানমন্ডির ৮ নম্বর রোডের ইমপেরিয়াল সুলতানা ভবনে গেলে সেখানের নিরাপত্তাকর্মী বলেন, ঈদের পরদিন (মঙ্গলবার) ইফাত বাসা থেকে বের হয়ে আর বাসায় ফেরেনি।

সূত্র: যুগান্তর

সীমান্তে বেড়েছে গরু চোরাচালান
                                  

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে বান্দরবানে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ও বাইশারী এবং কক্সবাজারে রামুর গর্জনিয়া-কচ্চপিয়া সীমান্ত দিয়ে বেড়েছে গরু চোরাচালান। চোরাকারবারীদের পাশাপাশি পাচারে জড়িয়ে পড়ছেন রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিরা। আর পাহাড়ে অবস্থান করা ডাকাতদলের পাহারায় এসব গরু পৌঁছানো হচ্ছে গন্তব্যে।

তথ্য বলছে, মিয়ানমার থেকে চোরাইপথে আসা গরু রামুর গর্জনিয়া বাজার, ঈদগাঁও বাজার, রামু বাজার, ঘুমধুম তুমব্রু বাজার, চাকঢালা বাজার, উখিয়ার মরিচ্যা বাজারসহ জেলার অভ্যন্তরে অন্যান্য বাজারে তোলা হয়। আর ইজারাদার নির্ধারিত হাসিলের অতিরিক্ত টাকা নিয়ে স্লিপ দিয়ে বৈধতা দেন।

চোরাচালান বিষয়ে জানতে রামু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু তাহের দেওয়ান বলেন, আমরা চোরাচালান প্রতিরোধে তৎপর রয়েছি। কোনো অপরাধী ছাড় পাবে না।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, সীমান্তে পুলিশ কোনো তৎপরতা চালাতে পারে না। তবে সমতলে যেকোনো অপরাধ দমনে সচেষ্ট রয়েছে পুলিশ টিম।

ফেনীতে ৮ পরিবহন চাঁদাবাজ আটক
                                  

 

ফেনী: বিভিন্ন ট্রাক, মিনি ট্রাক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা থেকে অবৈধভাবে চাঁদা আদায়কালে ৮ চাঁদাবাজকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

ফেনীর সোনাগাজীতে শনিবার (৮ জুন) রাতে ডাক বাংলো, কলেজ রোড ও জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

র‌্যাব জানায়, আটকরা হলেন-উপজেলার উত্তর চর চান্দিয়া গ্রমের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মো. জসিম উদ্দিন (৩০), মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের আব্দুস শুক্কুরের ছেলে মো. এমরান হোসেন (৩৬), পৌর এলাকার চর গনেশ গ্রামের মৃত ফজলুল হক চৌধুরীর ছেলে একেএম মাইনুল হক চৌধুরী মাঈনুদ্দীন (৩৭), এ কে এম মোফাজ্জল হক চৌধুরী (৪৮), পৌর এলাকার পূর্ব চর গণেশ গ্রামের মো.হাবিবুল্লাহর ছেলে মো. শহিদুল ইসলাম (৩৪), পৌর এলাকার তুলাতুলী গ্রামের মৃত সিদ্দিক আহম্মদের ছেলে মো. নুর করিম (২৭), সোনাগাজী সদর ইউনিয়নের পূর্ব সুজাপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সালামের ছেলে সিরাজুল ইসলাম (৪২) ও মতিগঞ্জ ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের করিমুল হকের ছেলে রবিঊল হক (২৯)।

এ সময় তাদের জিজ্ঞাসাবাদ ও দেহ তল্লাশি করে বিভিন্ন গাড়ি থেকে আদায় করা ৪৯ হাজার ৮০৫ টাকা ও বিভিন্ন নামে-বেনামে কাটা ভুয়া রশিদ উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, র‍্যাবের এসআই সৌরভ হোসেন বাদী হয়ে পৃথক দুটি মামলা করে রোববার (৯ জুন) আসামিদের থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুদ্বীপ রায় পলাশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসামিদের দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

কাঠের গুঁড়া-রঙ দিয়ে তৈরি হচ্ছে মসলা!
                                  

সুনামগঞ্জের বাদাঘাট বাজারে কারখানায় প্রস্তুত হচ্ছে ভেজাল মসলা। ভেজাল ও নিম্নমানের মসলায় ভরে গেছে তাহিরপুর উপজেলার বৃহৎ হাট বাদাঘাট বাজার। আসন্ন কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে বাজারে এখন মসলার ব্যাপক চাহিদা। সেই চাহিদায় বেশি লাভের আশায় ভেজাল ও নিম্নমানের মসলা তৈরি করতে ব্যস্ত বাদাঘাটের মসলা কারখানা।

নিত্যপ্রয়োজনীয় এসব মসলায় ইট, অটো মিলের কুড়া ও কাঠের গুঁড়া মিশিয়ে উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে পাইকারি ও খুচরা বিক্রি হচ্ছে।

শুক্রবার (৭ জুন) ভেজাল মসলার বিষয়ে বাদাঘাট বাজারের মো. আহাদ উল্লাহ নামে এক ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভেজাল মসলার ছবিসহ ভিডিও পোস্টে করেন। তাতে লিখেন ‘বাদাঘাট বাজার মসলা বানানোর কারখানা। কাঠের গুঁড়া, আটার কুড়া, আর সাথে দিচ্ছে লাল রঙের ক্যামিক্যাল। আর অল্প কিছু মরিচ। সব একসাথে মিশিয়ে এগুলিকে মিশিয়ে বাজারজাত করানো হয়। আর সাধারণ মানুষ এগুলো বাজার থেকে কিনে খায়। আমি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এগুলো যেন একটু নজরে নেন। মানুষকে কীভাবে বোকা বানানো হয় তা আমি আজ নিজ চোখে দেখলাম।’ তার এ লেখাটি সন্ধ্যায় পোস্ট করা মাত্র মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় এবং শতাধিক শেয়ার হয়।

পবিত্র ঈদকে সামনে রেখে অসাধু ব্যবসায়ীরা এই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। আসন্ন কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে দোকানে দোকানে পৌঁছে গেছে এসব ভেজাল ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর মসলা। এসব মসলার মধ্যে মরিচের সঙ্গে ইটের গুঁড়া, হলুদে মটর ডাল, ধনিয়ায় ‘স’ মিলের কাঠের গুঁড়া ও পোস্তদানায় সুজি মেশানো হচ্ছে। বেশি মুনাফা লাভের আশায় বাদাঘাট বাজারের মসলা ভাঙানোর মিলগুলো এসব ভেজাল মসলার যোগান দিচ্ছে।

বালিজুড়ী গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস ছত্তার বলেন, বাদাঘাট বাজার হচ্ছে তাহিরপুর উপজেলার পাইকারী হাট । ওখান থেকেই উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারের পাইকারগণ মসলা কিনে নিয়ে উপজেলার সবকটি হাটবাজারে বিক্রি করে থাকে।

তাহিরপুর এলাকার বাসিন্দা রবিন বলেন, অসাধু দোকানদাররা বেশি লাভের আশায় এসব ভেজাল মসলা বেশি বিক্রি করছে। ঈদ সবার জন্য আনন্দ বয়ে আনে, কিন্তু এদের মতো ব্যবসায়ীদের কারণে অনেক পরিবার ধ্বংস হয়।

তাহিরপুর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মকবুল হোসেন বলেন, বাদাঘাট বাজারের মসলা মিলগুলো ভেজাল মসলা তৈরি করছে অনেকেই আমার কাছে অভিযোগ করেছে। বিষয়টি আমি সরজমিনে দেখে ব্যবস্থা নেব।

দামুড়হুদায় লুঙ্গির ভাঁজে মিলল ২০ ভরি স্বর্ণ, আটক ১
                                  

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা সীমান্ত থেকে দুটি স্বর্ণের বারসহ কাওছার (৪০) নামে এক চোরাকারবারিকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি)। জব্দ দুটি স্বর্ণের বারের ওজন প্রায় ২০ ভরি।

বুধবার (৫ জুন) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সাঈদ মোহাম্মদ জাহিদুর রহমান সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিন সকাল ১০টার দিকে দামুড়হুদা কুতুবপুর এলাকা থেকে এগুলো উদ্ধারসহ তাকে আটক করা হয়।

আটক কাওছার দামুড়হুদা উপজেলার কুতুবপুর মুন্সিপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে।

বিজিবি জানায়, কুতুবপুর মুন্সিপুর সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে স্বর্ণেরবার চোরা চালান হবে এমন গোপন তথ্য পেয়ে সীমান্ত পিলার ৯৩/৩-আর থেকে আনুমানিক দেড় কিলোমিটার বাংলাদেশের ভেতরে কুতুবপুর পাকা রাস্তার পাশে অবস্থান করেন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে একটি অটোরিকশা ওই এলাকা দিয়ে সীমান্তের দিকে যেতে দেখে চ্যালেঞ্জ করলে অটোরিকশাচালক পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় বিজিবির টহল দল তাকে আটক করে। বিজিবি সশস্ত্র টহল দল আটক অটোরিকশা চালককে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তার শরীরে পরিহিত লুঙ্গির ভাঁজে কোমরের সঙ্গে কালো স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ২৩২ গ্রাম বা ১৯ দশমিক ৮৯ ভরি ওজনের দুটি স্বর্ণের বার জব্দ করে।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সাঈদ মোহাম্মদ জাহিদুর রহমান জানান, জব্দ অটোরিকশা ও এসব স্বর্ণের বারের আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় ২৭ লাখ টাকা। আটক ব্যক্তিকে আসামি করে দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের ও স্বর্ণের বারগুলো চুয়াডাঙ্গা ট্রেজারি অফিসে জমা দেওয়ার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

মুন্সিগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক নিহত
                                  

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে আধিপত্য বিস্তার ও ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মো. হাশেম (৩৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। সোমবার (৩ জুন) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের রামকৃষ্ণদী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত হাশেম বাসাইল ইউনিয়নের উত্তর পাথরঘাটা গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে। তিনি বাসাইল ইউপি চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম যুবরাজের গাড়িচালক ছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লতব্দী ইউনিয়নের রামকৃষ্ণদী গ্রামের মনু বেপারীর ছেলে জাবেদ ওমরের সঙ্গে একই গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে ও বাসাইল ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম যুবরাজের জামাতা মো. জহিরুলের বিরোধ চলে আসছে। গত ৩১ মে রামকৃষ্ণদী বাজার মাঠে ক্রিকেট খেলা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এ বিষয়ে সোমবার সকালে স্থানীয়রা দুপক্ষের মধ্যে মীমাংসা করেন। কিন্তু বিকেলে জাবেদ ওমরের লোকজন জহিুরুলের লোকজনের ওপর হামলা করেন। এ সময় জহিরুলের সমর্থক মো. হাশেমকে চাপাতি দিয়ে কোপালে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মো. মোক্তার হোসেন জানান, ক্রিকেট খেলা নিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা হয়। মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মেঘনায় বাল্কহেডে অভিযান, গ্রেফতার ১০
                                  

জেলা প্রতিনিধি : চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে বাল্কহেডে অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন অপরাধে ৯ বাল্কহেডের ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অভিযানে কাগজপত্র যাচাই করে বাল্কহেডের সার্ভে সনদ ঝুলিয়ে না রাখা, রেজিস্ট্রেশন নম্বর প্রকাশ্যে স্থানে উৎকীরন এবং সুকানি যোগ্যতা না থাকার অপরাধে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) রাতে চাঁদপুর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছন।

তিনি জানান, সকাল ৬টা ৪০মিনিট থেকে সকাল ১০টা ২০ মিনিট পর্যন্ত সদর উপজেলার পৌর এলাকা ও রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের মিনি কক্সবাজার নামক স্থানে অভিযান চালিয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ময়নাল হোসেন ও সঙ্গীয় ফোর্স তাদেরকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতার ১০ জনের মধ্যে আটজনের বিরুদ্ধে অভ্যন্তরীণ নৌ চরাচল অধ্যাদেশ ১৯৭৬ (সংশোধনী-২০০৫) বিবিন্ন ধারায় মেরিন আদালতে প্রসিকিউশন দাখিল করা হয় এবং জব্দকৃত বাল্কহেড চালকের নিকট বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এছাড়া বাকী দুইজনের বিরুদ্ধে ১৮৬০ সালের পেনাল কোড আইনের ২৮০/৩৪ ধারায় একটি নিয়মিত মামলা হয়েছে।

ফরিদপুরে ডিমের বাজারে ভোক্তার অভিযান
                                  

ফরিদপুর: সম্প্রতি অস্থির হয়ে ওঠা ডিমের বাজারে দাম সহনীয় পর্যায়ে ফিরিয়ে আনতে ফরিদপুরের বিভিন্ন বাজারের আড়তে অভিযান পরিচালনা করেছে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন ডিমের ডিলার-গোডাউনে অভিযান পরিচালনা করেন অধিদপ্তরটির সহকারী পরিচালক মো. সোহেল শেখ।

এ সময় তিনটি প্রতিষ্ঠানকে ৩১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
অভিযান সূত্রে জানা যায়, ডিমের দামে কারসাজি করা, দোকানে কেনা-বেচার রশিদ না থাকা, মূল্য তালিকা যথাযথভাবে সংরক্ষণ ও প্রদর্শন না করার অপরাধে মিতালী ট্রেডার্সকে ৮ হাজার, মোল্লা স্টোরকে ৩ হাজার এবং দিশারী ট্রেডার্সকে ২০ হাজার জরিমানা করা হয়। এই তিন প্রতিষ্ঠান থেকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে মোট ৩১ হাজার জরিমানা আদায় করা হয়।

বাজার তদারকি অভিযানে জেলা সিনিয়র কৃষি বিপণন কর্মকর্তা মো. শাহাদাত হোসেন এবং জেলা পুলিশের একটি টিম উপস্থিত ছিলেন।

জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. সোহেল শেখ জানান, ফার্মগুলো প্রতিটি ডিম ৯ দশমিক ৪৭ টাকা দরে বিক্রি করে খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে। সেক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত দামে তাদের ১০ দশমিক ৫৭ টাকা বিক্রি করার কথা। কিন্তু এসব অসাধু ব্যবসায়ী প্রতিটি ডিম ১১ দশমিক ৫০ টাকা থেকে ১২ টাকা বিক্রি করছেন। এমন খবর পেয়ে ভোক্তাদের ন্যায্য মূল্যে ডিম পেতে এ ধরনের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

অশ্লীল ভিডিওর ফাঁদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার স্ত্রীসহ আটক ৩
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পাবনার ঈশ্বরদীতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অশ্লীল ভিডিও ধারণের পর ব্ল্যাকমেইল করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার স্ত্রী পারভীন আক্তার শাহানাজ ওরফে রূপসীসহ প্রতারক চক্রের তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২১ মে) রাতে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাখাওয়াত হোসেন সজিব মালিথার স্ত্রী পারভীন আক্তার শাহানাজ ওরফে রূপসী (২৬), ঈশ্বরদী পৌর শহরের মশুরিয়াপাড়া এলাকার মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে জালাল হোসেন (২২) ও দাশুড়িয়া বালিয়াডাঙ্গা (বাঘ হাছলা) গ্রামের বাদশা মন্ডলের ছেলে আজমল হক(২৭)।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রায় সাড়ে চার মাস আগে পাবনা সদর থানার টেবুনিয়া ভজেন্দ্রপুর গ্রামের মৃত আফসার আলী প্রামাণিকের ছেলে আব্দুল লতিফের বাসায় ভাড়া থাকতেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাখাওয়াত হোসেন সজিব মালিথা ও তার স্ত্রী।

সোমবার (২০ মে) বিকেলে ব্যবসায়িক কাজে আব্দুল লতিফ ঈশ্বরদীতে গেলে আবারও মুঠোফোনে যোগাযোগ হয় পারভিন আক্তারের সঙ্গে। পারভিন আক্তার তাকে ঈশ্বরদী পৌর শহরের পূর্বটেংরী বকুলের মোড়ে তাদের নতুন ভাড়া বাসায় বেড়াতে যাওয়ার জন্য দাওয়াত দিলে আব্দুল লতিফ সেখানে যান। পরে পারভিন আক্তার পূর্বপরিকল্পিতভাবে জামাল ও আজমলের সহযোগিতায় তার বাসায় অজ্ঞাতনামা এক নারীর সঙ্গে আব্দুল লতিফকে একটি রুমে আটকে রেখে মারপিট করেন। পরে আব্দুল লতিফকে বিবস্ত্র করে ওই নারীর সঙ্গে অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ধারণ করেন তারা।

এই ভিডিও এবং ছবি ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে লতিফের কাছ থেকে বিকাশের মাধ্যমে ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রটি। পরে একটি সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে আব্দুল লতিফকে ছেড়ে দেওয়া হয়। মঙ্গলবার আব্দুল লতিফ বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ঈশ্বরদী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে মোবাইল ফোনে সখ্য গড়ে অশ্লীল ভিডিও ধারণের মাধ্যমে মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করে আসছিল। আসামিদের আটকের সময় উল্লিখিত স্ট্যাম্প, নগদ টাকা ও ভিডিও ধারণকারী মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।


   Page 1 of 43
     অপরাধ ও অনিয়ম
নোয়াখালীতে ৪ হাজার কেজি চিনিসহ পিকআপ চালক গ্রেপ্তার
.............................................................................................
৬ লাখ টাকা নিয়ে উধাও কর্মসংস্থান ব্যাংকের নিরাপত্তারক্ষী
.............................................................................................
মতিউরের ৪ ফ্ল্যাট, ৮৬৬ শতাংশ জমি জব্দের নির্দেশ
.............................................................................................
উপকূল ট্রেনে পাথর ছুড়ে গ্লাস ভাঙচুর
.............................................................................................
মতিউর ও তার পরিবারের সম্পদের খোঁজে বিভিন্ন দপ্তরে দুদকের চিঠি
.............................................................................................
লাকড়ি পোড়ানোয় ইট ভাটা বন্ধ, জরিমানা ৩ লাখ
.............................................................................................
‘সম্পদের পাহাড়’ ছেড়ে আত্মগোপনে ছাগলকাণ্ডের মতিউরের স্ত্রী
.............................................................................................
সেই ইফাত আরও ৭০ লাখ টাকার গরু কিনেছিলেন যেখান থেকে
.............................................................................................
সীমান্তে বেড়েছে গরু চোরাচালান
.............................................................................................
ফেনীতে ৮ পরিবহন চাঁদাবাজ আটক
.............................................................................................
কাঠের গুঁড়া-রঙ দিয়ে তৈরি হচ্ছে মসলা!
.............................................................................................
দামুড়হুদায় লুঙ্গির ভাঁজে মিলল ২০ ভরি স্বর্ণ, আটক ১
.............................................................................................
মুন্সিগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক নিহত
.............................................................................................
মেঘনায় বাল্কহেডে অভিযান, গ্রেফতার ১০
.............................................................................................
ফরিদপুরে ডিমের বাজারে ভোক্তার অভিযান
.............................................................................................
অশ্লীল ভিডিওর ফাঁদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার স্ত্রীসহ আটক ৩
.............................................................................................
বগুড়ায় কোল্ড স্টোরেজে দুই লক্ষাধিক ডিম
.............................................................................................
ফরিদপুরে ইয়াবাসহ নারী মাদকবিক্রেতা গ্রেপ্তার
.............................................................................................
বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদসহ গ্রেপ্তার ৫
.............................................................................................
ফল প্রকাশের সময় বিজয়ী প্রার্থীর গাড়ি ভাঙচুর
.............................................................................................
কিশোরগঞ্জে কোল্ড স্টোরেজে মিলল ২৮ লাখ পিস ডিম
.............................................................................................
ইটনায় ২০ কেজি গাঁজাসহ কারবারি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ঝিনাইদহ সীমান্তে ৪০ সোনার বারসহ দুই কারবারি আটক
.............................................................................................
নগদের দুই কর্মীকে গুলি করে ৬০ লাখ টাকা ছিনতাই
.............................................................................................
কুমারখালীতে ইসলামী ব্যাংকের ভল্ট ভেঙে চুরি
.............................................................................................
ফেসবুকে হা হা রিয়েক্ট দেওয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, দোকানপাট ভাঙচুর
.............................................................................................
নওগাঁয় কষ্টি পাথরের মূর্তিসহ চোরাকারবারি আটক
.............................................................................................
জামালপুরে ট্রেনের টিকিটসহ কালোবাজারি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
জয়পুরহাটে কিশোর গ্যাংয়ের লিডারসহ গ্রেপ্তার ৮
.............................................................................................
যশোরে ধর্ষণের অভিযোগে মাদরাসার প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার
.............................................................................................
অপহরণের পর ধর্ষণ, পলাতক আসামি গ্রেফতার
.............................................................................................
শিবচরে ৩ মণ জাটকা ও ১০ কেজি জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ
.............................................................................................
সরাইলে দম্পতির কাছে মিললো গাঁজা ও ইয়াবা
.............................................................................................
৩২ মামলার আসামিকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
অবৈধভাবে আনা ২৯০ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দ
.............................................................................................
হেলমেট পরে ফার্মগেটে দুই দোকান থেকে ১৯০ ভরি সোনা চুরি
.............................................................................................
মটরশুটি ক্ষেতে বিষ দিয়ে ৪০০ কবুতর হত্যা
.............................................................................................
সাতক্ষীরায় আইস-হেরোইন উদ্ধার
.............................................................................................
ভেজাল আইসক্রিম বিক্রির অপরাধে দোকানির জরিমানা
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জে ৮০ লাখ টাকার গাঁজাসহ চার কারবারি গ্রেফতার
.............................................................................................
স্কুলছাত্রীকে অপহরণ মামলায় বাবা-ছেলে গ্রেফতার
.............................................................................................
গভীর রাতে হালদায় অভিযান, ৪ হাজার মিটার জাল জব্দ
.............................................................................................
রাজশাহীতে আদালত চত্বরে ককটেল বিস্ফোরণ
.............................................................................................
ঝিনাইদহে সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা
.............................................................................................
প্রাথমিকের ৬ বস্তা নতুন বই জব্দ
.............................................................................................
কিশোরগঞ্জে বাবার ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার
.............................................................................................
বরিশালে ৭ হাজার ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার
.............................................................................................
বখাটেদের উত্ত্যক্ত সইতে না পেরে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
.............................................................................................
হাত-পা-মুখ বেঁধে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, অবস্থা আশঙ্কাজনক
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: [email protected]
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD