বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ‘গ্লোবাল অ্যাম্বাসেডর ফর ডায়াবেটিস’ পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী   * ঢাকায় ব্রিটিশ নাগরিকদের চলাচলে সতর্কতা জারি   * ৬৫ বছরের বেশি বয়সীরাও হজে যেতে পারবেন: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী   * ছাত্রলীগকে গুজবের জবাব দেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর   * বাংলাদেশ ৩০০ কোটির বেশি মানুষের বাজার হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী   * গাইবান্ধা-৫ আসনে উপনির্বাচনে ফের ভোট ৪ জানুয়ারি   * বিবাহবহির্ভূত যৌন সম্পর্ক নিষিদ্ধ করলো ইন্দোনেশিয়া   * সাগরে সুস্পষ্ট লঘুচাপ, ১২ ডিগ্রির নিচে নামলো তাপমাত্রা   * ছাত্রলীগের সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী   * কুমিল্লায় ট্রেনের ধাক্কায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত  

   অপরাধ ও অনিয়ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বলৎকার মামলায় জামায়াত নেতা কারাগারে

অনলাইন ডেস্ক : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলায় বলৎকার মামলায় রুহুল আমিন মোড়ল (৫৬) নামের এক জামায়াত নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। রুহুলের বাড়ি উপজেলার কুশুলিয়া ইউনিয়নের চন্ডিতলা গ্রামে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ৩১ অক্টোবর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের পারুলগাছা মাঠে চার দলীয় নক আউট ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ছিল। খেলা শেষে সন্ধ্যার পর মাঠের পাশের একটি বাগানে নিয়ে জামায়াত নেতা রুহুল আমিন তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রকে বলৎকার করে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে রুহুল আমিন।

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হালিমুর রহমান বলেন, বলৎকারের অভিযোগে ভুক্তভোগী শিশুর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। এরপর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতার কর হয়। বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

বলৎকার মামলায় জামায়াত নেতা কারাগারে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলায় বলৎকার মামলায় রুহুল আমিন মোড়ল (৫৬) নামের এক জামায়াত নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। রুহুলের বাড়ি উপজেলার কুশুলিয়া ইউনিয়নের চন্ডিতলা গ্রামে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ৩১ অক্টোবর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের পারুলগাছা মাঠে চার দলীয় নক আউট ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ছিল। খেলা শেষে সন্ধ্যার পর মাঠের পাশের একটি বাগানে নিয়ে জামায়াত নেতা রুহুল আমিন তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রকে বলৎকার করে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে রুহুল আমিন।

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হালিমুর রহমান বলেন, বলৎকারের অভিযোগে ভুক্তভোগী শিশুর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। এরপর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতার কর হয়। বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

সুন্দরবন এলাকায় মাছ ধরার সময় ট্রলারসহ ৩৮ জেলে আটক
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের কটকা এলাকা থেকে ১৮টি মাছ ধরার ট্রলারসহ ৩৮ জেলেকে আটক করা হয়েছে। রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে অভয়ারণ্যে অবৈধভাবে মাছ ধরার সময় হাতেনাতে তাদের আটক করা হয়।

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. সামসুল আরেফিন জানান, ট্রলারগুলো থেকে ইলিশ ধরার জালসহ ছোট মাছ ধারার ১৮টি জাল জব্দ করা হয়েছে। আটক এসব জেলেদের বাড়ি বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার রাজাপুর ও বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় বলে জানা গেছে।

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, আটক জেলেদের বিরুদ্ধে বন আইনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

চলন্ত বাস ৩ ঘণ্টা কব্জায় রেখে ডাকাতি-সংঘবদ্ধ ধর্ষণ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : কুষ্টিয়া থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী নাইট কোচ বাসে যাত্রীবেশে ওঠে ডাকাতদলের সদস্যরা। প্রথমে গাড়ির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে যাত্রীদের হাত-পা ও চোখ বেঁধে মারধর ও সম্পদ লুট করে। পরে এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও সবশেষে পথ পরিবর্তন করে টাঙ্গাইলের মধুপুরের রাস্তার পাশের বালির ঢিবিতে পরিবহনটি উল্টে দিয়ে পালিয়ে যায়। আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ওই সদস্যরা টানা তিন ঘণ্টা যাত্রীদের ওপর এমন ভয়াবহ অত্যাচার চালায় বলে জানা যায়।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে মধুপুরের রক্তিপাড়া জামে মসজিদের উল্টো পাশে মজিবরের বাড়ির সামনের বালির ঢিবিতে বাস উঠিয়ে দিয়ে ডাকাত দল পালিয়ে যায়।

কুষ্টিয়া থেকে ঈগল পরিবহনের বাসটি ৩০-৩৫ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে মঙ্গলবার ছেড়ে আসার পথে এমন ঘটনা ঘটে।

নাটোরের বড়াইগ্রামের বাসিন্দা ফল ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব ওই বাসের নিয়মিত যাত্রী। বাসের সুপারভাইজার রাব্বি ও হেলপার দুলাল তার পূর্বপরিচিত। কিন্তু ওই বাসের চালক নতুন ছিলেন বলে জানান তিনি।

হাবিবুর রহমান জানান, বাসটি সিরাজগঞ্জের কাছাকাছি দিবারাত্রি হোটেলে নৈশভোজের জন্য যাত্রাবিরতি দেয়। পরে রাত দেড়টার দিকে আবার যাত্রা শুরু করে। পথে কাঁধে ব্যাগ বহন করা ১০-১২ জন তরুণ বাসে ওঠে। এ সময় বাসের সবাই প্রায় ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল। বাসটি বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পর যাত্রীবেশে থাকা ওই ডাকাতদল অস্ত্রের মুখে একে একে ঘুমন্ত যাত্রীদের বেঁধে ফেলে। প্রত্যেক যাত্রীর চোখ ও মুখ বেঁধে চালককেও জিম্মি করে বাসের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় তারা। পাঁচ মিনিটের মধ্যে সব যাত্রীর কাছ থেকে মোবাইল, টাকা, গহনা লুট করে নেয়। তারপর এক যাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে ডাকাত দলের সদস্যরা।

তিনি আরও জানান, বাসটি বিভিন্ন রাস্তায় ঘুরিয়ে তিন ঘণ্টার মতো নিয়ন্ত্রণে রাখে। শেষে পথ পরিবর্তন করে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মধুপুর উপজেলার রক্তিপাড়া জামে মসজিদের পাশে বালির ঢিবিতে বাস উঠিয়ে ডাকাত দল নেমে যায়।

হাবিবুর রহমান বলেন, বুধবার (৩ আগস্ট) সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা আমাদের উদ্ধার করে।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার তারাগুনিয়া গ্রামের শিল্পী বেগম অসুস্থ মেয়ে জেসমিনকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। বুধবার তার কানের অপারেশন হওয়ার কথা ছিল।

তিনি জানান, তার কাছে থাকা ৩০ হাজার টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নিয়েছে ডাকাতরা। এ সময় তার স্বামী পিয়ার আলীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে আহত করা হয়েছে।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা আব্দুর রশিদ। তিনি নাটোর থেকে বাড়ি যাচ্ছিলেন অসুস্থ মাকে দেখার জন্য। বেতনের ২২ হাজার ৮০০ টাকা ডাকাতরা নিয়ে গেছে।

খবর পেয়ে বুধবার সকালে মধুপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। গাড়িতে থাকা দেশীয় অস্ত্র উদ্ধারের কথা স্বীকার করেছেন মধুপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এনামুল হক।

বিকেল ৫টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, ডিবি পুলিশের একটি দল তদন্ত কাজ চালাচ্ছে। পুলিশের সহযোগিতায় একদল উদ্ধারকর্মী বাসটি উদ্ধার করছেন। টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে থানায় এসে বাসযাত্রী ও সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। এ সময় ময়মনসিংহ থেকে আসা ডিএনএ পরীক্ষাগারের কর্মীদের থানায় অবস্থান করতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাজহারুল অমিন বলেন, ঘটনার রহস্য উদঘাটনে তদন্ত কাজ চলছে। বাসের এক যাত্রীকে বাদী করে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

কাউকে আটক বা জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে কি না জানতে চাইলে তিনি জানান, সবদিক বিবেচনায় তদন্ত চলছে। বলার মতো সময় এখনো আসেনি।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার পরবর্তীতে জানান, কুষ্টিয়ার এক যাত্রী বাদী হয়ে অজ্ঞাত ১০-১২ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। তদন্তের ভালো অগ্রসর হয়েছে। এ পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি। সময় হলে গণমাধ্যমকে সব জানানো হবে।

সূত্র: জাগো নিউজ

সুদের টাকা আদায়ে শিশুকে অপহরণ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে সুদের টাকা আদায়ের জন্য সম্রাট (১০) নামে এক শিশুকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। সম্রাট উপজেলার মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের দেবোত্তর পাড়া গ্রামের আব্দুল হালিমের ছেলে ও স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

রোববার (৩১ জুলাই) একই গ্রামের মহাজন মোফাজ্জল হোসেন (৪৫) শিশু সম্রাটকে অপহরণ করে নিয়ে যান। খবর পেয়ে সোমবার (১ আগস্ট) রাতে ঝিনাইগাতী থানা পুলিশ পার্শ্ববর্তী নালিতাবাড়ী উপজেলার নলজুড়া বাজার থেকে সম্রাটকে উদ্ধার করে। পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে সটকে পড়েন মোফাজ্জল।

এ ব্যাপারে সম্রাটের নানি জুলেখা বেগম বাদী হয়ে ঝিনাইগাতী থানায় অপহরণ মামলা করেছেন।

পুলিশ ও সম্রাটের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ৮ মাস আগে সম্রাটের বাবা আব্দুল হালিম মোফাজ্জলের কাছ থেকে চড়া সুদে ৫০ হাজার টাকা দাদন গ্রহণ করেন। গত ৮ মাসে ১৮ হাজার টাকা সুদ এবং আসল থেকে ১৫ হাজার টাকা ফেরত দেওয়া হয়। বাকি টাকা পরিশোধের জন্য সময় চাইলে মোফাজ্জল সময় না দিয়ে সুদে আসলে ২ লাখ টাকা দাবি করেন।

টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হলে শিশু সম্রাটকে তুলে নেওয়ার হুমকিও দেওয়া হয়। আব্দুল হালিম মোফাজ্জলের দাবি অনুযায়ী টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় রোববার দুপুরে মোফাজ্জল শিশু সম্রাটকে অপহরণ করে নিয়ে যান। খবর পেয়ে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সম্রাটকে উদ্ধার করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল আলম ভুইয়া বলেন, এ ব্যাপারে অপহরণের দায়ে থানায় একটি মামলা হয়েছে। অপহরণকারীকে গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

সূত্র: জাগো নিউজ

নোয়াখালীতে চার মামলার আসামি ইয়াবাসহ গ্রেফতার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নোয়াখালী সদর উপজেলা থেকে আবছার হোসেন (৩৩) নামের অস্ত্র ডাকাতি ও পুলিশ অ্যাসল্ট মামলার এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ সময় তার কাছ থেকে ৫০০ পিস ইয়াবা ও একটি চোরাই মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত মো. আবছার হোসেন (৩৩) হাতিয়া উপজেলার হরণী ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের শরীয়তপুর গ্রামের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে। বর্তমানে সে সুবর্ণচর উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নের চরবৈশাখী শান্তিরহাট এলাকায় বসবাস করে।

শনিবার (২৩ জুলাই) দুপুরের দিকে গ্রেফতারকৃত আসামিকে নোয়াখালী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে। এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় নোয়াখালী পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কৃষ্ণনারায়ণপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।
নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-ডিবি) সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া থানায় অস্ত্র, ডাকাতি, পুলিশ আক্রান্ত ও নোয়াখালীর হাতিয়া থানায় তার বিরুদ্ধে চারটি মামলা রয়েছে। ইয়াবা এ সময় পুলিশ মাদক বিক্রির কাজে ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল জব্দ করে।

ওসি আরো জানায়, শনিবার দুপুরের দিকে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আসামিকে নোয়াখালী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

২০ হাজার ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : প্রাইভেটকারে অভিনব কায়দায় লুকিয়ে ইয়াবা পাচারকালে এক মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

সোমবার (২৭ জুন) দুপুরে টেকনাফ থেকে কক্সবাজারের দিকে আসার সময় কলাতলী এলাকা হতে তাকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছে ২০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

গ্রেফতার করিম উল্লাহ (৩২) টেকনাফের গোদার বিল এলাকার মৃত অলি উল্লাহের ছেলে।

জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইফুল আলম জানান, প্রাইভেটকারটি মাঝেমধ্যে মাদক পরিবহনের আড়ালে টেকনাফ-কক্সবাজার রোডে (অনিয়মিত) যাত্রী বহন করে থাকে।

ওসি আরও জানান, গোপন তথ্যে খবর পেয়ে কক্সবাজারের কলাতলী সংলগ্ন মেরিন ড্রাইভ সড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে ওই প্রাইভেটকারটি তল্লাশি করা হয়। এসময় প্রাইভেটকারের চালক করিম উল্লাহকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে চালক ইয়াবা থাকার কথা অস্বীকার করেন। পরে গাড়িটি কলাতলি সেভেন স্টার ওয়ার্কশপে এনে বিভিন্ন অংশ খুলে তল্লাশি চালানো হয়। একপর্যায়ে ইঞ্জিনের নিচে এসি মেশিনের পাশে বিশেষ কায়দায় লুকানো ১০টি কালো প্যাকেটে ২০ হাজার পিচ ইয়াবা পাওয়া যায়।

ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় মামলা করে করিম উল্লাহকে কক্সবাজার সদর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

টেকনাফে সোয়া কেজি ক্রিস্টাল মেথসহ যুবক আটক
                                  

কক্সবাজারের টেকনাফে নাফনদী এলাকায় থেকে এক কেজি ৩৫৪ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথসহ (আইস) হাবিবুল্লাহ (৩৭) নামের এক যুবককে আটক করেছে বিজিবি। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ভোরে উপজেলার খারাংখালি বেড়িবাঁধ থেকে তাকে আটক করা হয়।

হাবিবুল্লাহ উপজেলার হ্নীলা মৌলভী বাজারের মৃত ইসলাম মিয়ার ছেলে।

টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার জানান, গোপন সংবাদের ওই এলাকায় অভিযান চালায় বিজিবি। পরে ভোরে হোয়াইক্যং খারাংখালি সীমান্ত থেকে হাবিবুল্লাহ আটকের পর তল্লাশি চালিয়ে এক কেজি ৩৫৪ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, আইনানুগ ব্যবস্থা শেষে তাকে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ১০
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নরসিংদীর রায়পুরায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। এসময় উভয়পক্ষের ১৫টি বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়।

সোমবার (২০ জুন) উপজেলার আমিরগজ্ঞ ইউনিয়নের নলবাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ভোরে বন্ধুক ও টেঁটাসহ বিভিন্ন অস্ত্র নিয়ে গুলজার মেম্বারের সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন। এ সময় তার অন্তত ১৫টি বাড়িঘর ভাঙচুর করে। তাদের গুলি ও টেঁটার আঘাতে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ১০ জন গুলিবিদ্ধ হন।

খৈারশেদ আলম নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, আধিপত্য বিস্তার ও বালু ব্যবসা নিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য গুলজারের সঙ্গে ও স্বর্ণ ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম রবির মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এর জেরে গত এক বছরে তিনবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রবিউল ইসলাম রবি ১০ দিন আগে জেল থেকে ছাড়া পান। এরপরই প্রতিপক্ষ গুলজার সমর্থকদের ওপর হামলা চালান।

এ ব্যাপারে রায়পুরা থানার ওসি (তদন্ত) গোবিন্দ সরকার বলেন, সংঘর্ষের খবরে সেখানে তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

চট্টগ্রামে ৪ অনলাইন জুয়াড়ি গ্রেফতার
                                  

চট্টগ্রামে চার অনলাইন জুয়াড়িকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বুধবার (২৫ মে) রাত ১০টার দিকে তাদের আকবর শাহ ও পাহাড়তলী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন নোয়াখালীর সেনবাগের শাহজাহানের ছেলে মো. শাহপরান (৩১), ফেনীর দাগনভুইয়ার জাকির হোসেনের ছেলে মো. জসিম উদ্দিন (৩৪), চট্টগ্রামের আকবর শাহের শামসুল আলমের ছেলে মো. মঈনুল ইসলাম (২৬) এবং পাহাড়তলীর মৃত আবদুল মোনাফ সওদাগরের ছেলে মো. আবদুর রশিদ (৩১)। তাদের বৃহস্পতিবার (২৬ মে) দুপুরে স্ব স্ব থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যাবের জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার বলেন, আকবর শাহ ও পাহাড়তলী এলাকার একটি দোকান এবং গোডাউনে অনলাইনে জুয়া খেলছিল কয়েকজন। তারা স্মার্টফোন ও ল্যাপটপের মাধ্যমে জুয়ার ওয়েবসাইটে গিয়ে খেলছিল। আর জুয়ার টাকা লেনদেন করছিল বিকাশের মাধ্যমে।

বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে আকবরশাহ ও পাহাড়তলী থানায় মামলা হয়েছে।

ভয় দেখিয়ে কিশোরকে বলাৎকার, কনস্টেবল গ্রেফতার
                                  

ফেনীতে মামলার ভয় দেখিয়ে কিশোরকে বলাৎকারের অভিযোগে ইউনুস নামের এক কনস্টেবলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মামলা দায়েরের পর বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২৩ ডিসেম্বর রাতে ফেনীর মহিপাল ফ্লাইওভারের নিচে অবৈধ মালামাল বহনের অভিযোগে ওই কিশোরকে তুলে নিয়ে পাশের একটি আবাসিক হোটেলে বলাৎকার করেন ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) গাড়ি চালক ইউনুস। বলাৎকারের ভিডিও ধারণ করে সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই কিশোরকে বেশ কয়েকবার বলাৎকার করেন তিনি। এক পর্যায়ে কনস্টেবল ইউনুসের মোবাইল চুরি করে নিয়ে এসে ওই ভিডিও ডিলিট করে বিক্রি করে দেয় নির্যাতিত কিশোর। পরে পুলিশ মোবাইল ক্রেতা শনাক্ত করলে তিনি ওই কিশোরের বাড়িতে যান। এতে বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে ওই কিশোর তার মাকে বিষয়টি খুলে বললে তিনি থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ ইউনুসকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন জানান, মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত ইউনুসকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তাকে বৃহস্পতিবার রাতে বরখাস্ত করা হয়েছে।

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মানিকগঞ্জের শিবালয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার(১১ এপ্রিল) দুপুরে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি জানিয়েছেন শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরজাহান লাবনী।

গ্রেফতাররা হলেন- শিবালয় উপজেলার শিবরামপুর গ্রামের তুহিনুজ্জামান তপুর ছেলে সামিউল ইসলাম ওরফে সামি (২২) ও ঘিওর উপজেলার শ্রীবাড়ী গ্রামের পল্লব সরকারের ছেলে তাপস সরকার (১৯)।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরজাহান লাবনী বলেন, গত ২ মার্চ বিকেলে বাড়ি থেকে খালাবাড়ি যাচ্ছিল ওই স্কুলছাত্রী (এসএসসি পরীক্ষার্থী)। শিবালয় উপজেলার টেপড়া এলাকা থেকে সামিউল ওরফে সামি ও তার সহযোগী তাপস সরকার জোর করে তাকে রিকশায় তুলে। এরপর রাতে পৃথক জায়গায় আটকে রেখে তাকে কয়েক দফায় ধর্ষণ করেন তারা। এ সময় ধর্ষণের ভিডিওচিত্রও ধারণ করা হয়। মেয়েটির মোবাইল ফোন ছিনিয়ে রেখে তাকে ভোরে টেপড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি রিকশায় খালাবাড়ির উদ্দেশ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনা কাউকে জানালে ধারণকৃত ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয় ছাত্রীকে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও বলেন, খালাবাড়ি ফিরে এ ঘটনা মেয়েটি জানালেও লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি চেপে যায় পরিবার। কিন্তু বখাটেরা ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তাকে আবারো নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছিলেন। দাবি করছিলেন টাকা ও স্বর্ণালংকারেরও। এক পর্যায়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়া হয়। রোববার শিক্ষার্থীর মা বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ধর্ষণের ভিডিওসহ মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা পুলিশের কাছে ঘটনা স্বীকার করেছেন। ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে শিবালয় থানায় মামলা করেন।

জিম্মি করে ধর্ষণ: যুবলীগ নেতা-মুগদার ওসিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঝিয়ের কাজের নামে তরুণীকে জিম্মি করে ধর্ষণ ও পতিতার কাজ করানোর অভিযোগে রাজধানীর মুগদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জামাল উদ্দিন মীর ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ৩৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি মো. জাভেল হোসেন পাপনসহ নয়জনের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে মামলা দায়ের হয়েছে।

রোববার (১০ এপ্রিল) ঢাকার মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে ভুক্তভোগী তরুণী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। ট্রাইব্যুনাল মামলাটি গ্রহণ করে অভিযোগ তদন্ত করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার অপর আসামিরা হলো- কেরানীগঞ্জের কোন্ডা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ৩৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. জাভেল হোসেন পাপন, মো. মোখলেছ, মো. আনিসুল বাসার রতন, মো. জসিম, মো. কবির ওরফে মিয়াজ, মো. আলাউদ্দিন ও মোসা. আনোয়ারা বেগম আঙ্গুরী।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ভুক্তভোগী তরুণী লঞ্চে করে ঢাকা আসার পথে আসামি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ৩৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. জাভেল হোসেন পাপন, মো. মোখলেছ ও কবির ওরফে মিয়াজের সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর তারা আসামি আনোয়ারা বেগম আঙ্গুরীর বাসায় ভুক্তভোগী তরুণীকে ঝিয়ের কাজ করায়। অতঃপর আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ভুক্তভোগী তরুণীকে জিম্মি করে তাকে প্রতিনিয়ত ধর্ষণ করতো। এছাড়া আসামিরা ঝিয়ের কাজের কথা বলে দীর্ঘদিন যাবৎ তাকে আটকে রেখে জোরপূর্বক পতিতার কাজ করিয়ে আসছিল। এ মামলার আসামি আনোয়ারা বেগম আঙ্গুরী ভুক্তভোগী তরুণীর কথিত নানী সেজে অন্যান্য আসামিদের সহযোগিতায় গত ২৯ মার্চ আসামি কোন্ডা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম, মো. মোখলেছ ও কবির ওরফে মিয়াজসহ অজ্ঞাত ২/৩ জন জোরপূর্বক পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করে।

পরে ভুক্তভোগী তরুণী আসামিদের জিম্মি দশা থেকে কৌশলে পালিয়ে মুগদা থানায় হাজির হন। সেখানে কর্তব্যরত কর্মকর্তা ঘটনার বিবরণ জানিয়ে মামলা গ্রহণের অনুরোধ করেন। কিন্তু মুগদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ভুক্তভোগী তরুণীর ধর্ষণ মামলা না নিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেন এবং তাকে নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখিয়ে থানা থেকে জোরপূর্বক বের করে দেন।

একইদিন ভুক্তভোগী তরুণী মুগদা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে গিয়ে দেখা করে ঘটনার বিবরণ জানান। তখন ভুক্তভোগী তরুণীকে আবারও মুগদা থানার ওসির কাছে পাঠানো হয়। আবারও সেখানে গেলে মামলা না নিয়ে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে তাকে বের করে দেওয়া হয়।

সূত্র: জাগো নিউজ

হত্যার হুমকি দিয়ে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ, কারাগারে বৃদ্ধ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে আইয়ুব খান (৫৮) নামের এক বৃদ্ধকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) রাত ৯টার দিকে উপজেলার ভাগ্যকূল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আইয়ুব খান ওই এলাকার মৃত খালাই খানের ছেলে। তিনি তিন সন্তানের জনক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ২৮ মার্চ ওই ছাত্রীকে বাড়িতে রেখে বাবা-মা পদ্মা নদীর চরে সরিষা তুলতে যান। এ সুযোগে আইয়ুব খান ঘরে ঢুকে হত্যার হুমকি দিয়ে ওই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনার পর ওই ছাত্রী নিশ্চুপ হয়ে যায়। মেয়ের আচরণের পরিবর্তন দেখে তার মা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ধর্ষণের ঘটনা জানায়। পরে ভুক্তভোগীর পরিবার বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে রাত ৯টার দিকে আইয়ুব খানকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিক আইয়ুব খানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে, বিচ্ছেদের পর ধর্ষণের অভিযোগ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ফরিদপুরের সালথায় বিচ্ছেদের পর তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গত ২৪ মার্চ ফরিদপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা করেন ওই তরুণী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, পাঁচ বছর আগে পাশের নগরকান্দা উপজেলার এক ছেলের সঙ্গে ওই তরুণীর বিয়ে হয়। সে সংসারে তার একটি ছেলেও রয়েছে। কিন্তু তরুণী যখন স্বামীর বাড়ি বাবার বাড়ি বেড়াতে আসতেন, তখন তাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতেন প্রতিবেশী ইউপি সদস্য শাহজাহান শেখের ছেলে ফুয়াদ শেখ। এক পর্যায়ে তাকে প্রেমের ফাঁদে ফেলেন ফুয়াদ।

প্রায় মাস দেড়েক আগে তার স্বামীকে তালাক দেওয়ান ফুয়াদ। পরে ফুয়াদ তরুণীকে নিয়ে পালিয়ে বিয়ে করেন। বিয়ের মাসখানেক যেতে না যেতেই গত ১০ মার্চ আবার তাকে তালকও দেন ফুয়াদ। কিন্তু গত ১২ মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় ফের তরুণীকে বাড়ির পাশের রাস্তা থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যান ফুয়াদ ও তার সহযোগী সাহিদ শেখ (৪৫), জাকির মাতব্বর (৪০), মুরাদ খালাসী (৩৫) ও জাফর শেখ (৩৫)।

ফরিদপুর শহরের মহা বিদ্যালয়ের পাশে থাকা জাকিরের বাসায় আটকে রেখে টানা আটদিন একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করে ফুয়াদ। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। ঘটনাটি নিয়ে তরুণী মামলা করতে চাইলে ১৯ মার্চ রাতে তাকে ফুয়াদ তার সহযোগীরা ডেকে নিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। তাকে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়। ২০ মার্চ বিকেল ৫টার দিকে বাড়ির পাশে ফেলে রেখে যান ফুয়াদ ও তার সহযোগীরা। তখন বাড়ির লোকজন তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ভুক্তভোগী তরুণীর মা বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ফুয়াদ শেখ ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে ২৪ মার্চ আমার মেয়ে বাদী হয়ে ফরিদপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতে ধর্ষণ মামলা করে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন। মামলার পর থেকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসামিরা আমার স্বামী ও সন্তানদের এলাকা ছাড়া করে রেখেছেন। এমন কি আমাদের জমির পেঁয়াজও উঠাতে দিচ্ছে না তারা।

এ বিষয়ে জানতে গত দুদিন ধরে অভিযুক্তদের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি। তবে রোববার (২৭ মার্চ) এসব অভিযোগ অস্বীকার করে ফুয়াদ শেখের বাবা ইউপি সদস্য শাহজাহান শেখ বলেন, ‘ঘটনাটি সাজানো নাটক। আমাদের হয়রানির জন্য মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। ওই নারীকে আমার ছেলে বিয়ে করেছিল। বিয়ের পর আবার ডিভোর্স দিয়ে দিয়েছে।’

এ বিষয়ে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশিকুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি। তবে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আদালতে করা মামলার তদন্ত ভার পাওয়ার বিষয়ে ফরিদপুর পিবিআইর পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুর রহমান বলেন, বৃহস্পতিবার মামলা হয়েছে। আমরা এখনো আদালতের নির্দেশনা হাতে পাইনি। আদালতের নির্দেশ হাতে পেলে তদন্ত কাজ শুরু করবো।

পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহকারী ১০ যুবক গ্রেফতার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নওগাঁর সাপাহার উপজেলা থেকে পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহকারী ১০ যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলার বাজার এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- সাপাহার উপজেলার বাহাপুর গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে নুর আলম (৩৫), মদনসিং গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে সাকিব হাসান (২৯), পিছল মধ্যপাড়া গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে ইমরান (২২), মানিকুড়া গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে কামাল হোসাইন (২৩) ও রাশেদুল হকের ছেলে আরিফুল ইসলাম(২৭), জয়পুর গুচ্ছগ্রামের মোজাফফর রহমানের ছেলে শাহিন আলম (২৬), খুদ রামবাটি (মহিলিপুর) গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে মতিউর রহমান (২৮), সৈয়দপুর গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে রাশেদ মিলন(২৮), বৈদ্যপুর গ্রামের তোজাম্মেল হকের ছেলে আব্দুল মাজেদ (২৮) এবং পত্নীতলা সাড়াইডাঙ্গা গ্রামের লোকমান আলীর ছেলে কাওসার মাহমুদ শান্ত (২৮)।

র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্প কোম্পানি কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার মাসুদ রানা বলেন, গোপন সংবাদে জেলার সাপাহার থানার সাপাহার বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের সদস্যরা। এ সময় বাজার এলাকা থেকে ১২টি সিপিইউ, ১৬টি হার্ডডিস্ক, ১২টি মনিটর, চারটি মাউস, নয়টি বিভিন্ন ক্যাবল, আটটি কিবোর্ডসহ পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহকারীকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে আসামিদের বিরুদ্ধে সাপাহার থানায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১২ অনুযায়ী মামলা করা হয়।

নামাজ প‌ড়ে ফেরার প‌থে বৃদ্ধকে গলাকে‌টে হত্যা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের ছোটভাকলায় খলিল উদ্দিন শেখ (৬০) নামে এক বৃদ্ধকে গলা কে‌টে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তর। রোববার (২০ মার্চ) রাতে ভাগলপুর চর মৌকুড়ীর খানকা শরীফ এলাকায় এ ঘটনা ঘ‌টে‌।

বৃদ্ধের পরিবার জানিয়েছে, রাতে এশার নামাজ পড়তে মসজিদে যান খলিল শেখ। ফেরার পথে কে বা কারা তাকে কুপিয়ে এবং গলা কেটে হত্যা করে ফেলে রেখে যায়।

খ‌লিল শেখ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের ভাগলপুর মাইটকুড়া গ্রামের হাচেন শেখের ছেলে। তিনি পেশায় একজন কৃষক।

নিহ‌তের জামাই ফরহাদ সরদার বলেন, ‘আমার শ্বশুর রাতে মসজিদে এশার নামাজ পড়তে যান। রাত ৮টার দিকে স্থানীয় সাব্বির নামে এক কিশোর ওই এলাকার কলাবাগানের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় শ্বশুরকে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তার চিৎকারে আশপাশের মানুষ এসে তাকে গলাকাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন।’

তিনি বলেন, ‘ওনার সঙ্গে কারও শত্রুতা ছিল বলে আমাদের জানা নেই। তিনি সাদাসধে মানুষ ছিলেন।’

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেফতার করা হবে।’


   Page 1 of 40
     অপরাধ ও অনিয়ম
বলৎকার মামলায় জামায়াত নেতা কারাগারে
.............................................................................................
সুন্দরবন এলাকায় মাছ ধরার সময় ট্রলারসহ ৩৮ জেলে আটক
.............................................................................................
চলন্ত বাস ৩ ঘণ্টা কব্জায় রেখে ডাকাতি-সংঘবদ্ধ ধর্ষণ
.............................................................................................
সুদের টাকা আদায়ে শিশুকে অপহরণ
.............................................................................................
নোয়াখালীতে চার মামলার আসামি ইয়াবাসহ গ্রেফতার
.............................................................................................
২০ হাজার ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার
.............................................................................................
টেকনাফে সোয়া কেজি ক্রিস্টাল মেথসহ যুবক আটক
.............................................................................................
নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ১০
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ৪ অনলাইন জুয়াড়ি গ্রেফতার
.............................................................................................
ভয় দেখিয়ে কিশোরকে বলাৎকার, কনস্টেবল গ্রেফতার
.............................................................................................
স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২
.............................................................................................
জিম্মি করে ধর্ষণ: যুবলীগ নেতা-মুগদার ওসিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
হত্যার হুমকি দিয়ে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ, কারাগারে বৃদ্ধ
.............................................................................................
প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে, বিচ্ছেদের পর ধর্ষণের অভিযোগ
.............................................................................................
পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহকারী ১০ যুবক গ্রেফতার
.............................................................................................
নামাজ প‌ড়ে ফেরার প‌থে বৃদ্ধকে গলাকে‌টে হত্যা
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে গাঁজা এনে ঢাকায় বিক্রি, গ্রেফতার ৩
.............................................................................................
গোয়ালঘরে মিললো গৃহবধূর মরদেহ, পলাতক শ্বশুর
.............................................................................................
পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, অভিযুক্ত গ্রেফতার
.............................................................................................
৬২০০ লিটার সয়াবিন তেল মজুত করে রেখেছিলেন ডিলার, গোডাউন সিলগালা
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জে কারারক্ষীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ৩ হাজার সিমসহ ভিওআইপি ব্যবসায়ী গ্রেফতার
.............................................................................................
ফতুল্লায় ছাত্রী অপহরণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার
.............................................................................................
৬ বছর পালিয়ে থাকার পর হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার
.............................................................................................
সমুদ্রে মাছ ধরার ছদ্মবেশে নৌকায় আইস-ইয়াবা এনে ঢাকায় সাপ্লাই
.............................................................................................
অবৈধভাবে ৪১৬ বস্তা সার মজুত, ব্যবসায়ী গ্রেফতার
.............................................................................................
বিষ প্রয়োগে শতাধিক ঘুঘু পাখিকে হত্যা
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩
.............................................................................................
তরুণীকে ৪ দিন আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ
.............................................................................................
প্রেমের প্রলোভন স্কুল পড়ুয়া পরশি কিশোরীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
নরসিংদীর পলাশে শিশুর পায়ুপথে নির্যাতন
.............................................................................................
ধর্ষণের শিকার কিশোরীর বিষপানে মৃত্যু, কারাগারে ২
.............................................................................................
সবজির ব্যাগে মিললো ৫ কোটি টাকার মূর্তি
.............................................................................................
বাঘের চামড়া বিক্রির সময় গ্রেফতার ২
.............................................................................................
নেত্রকোনায় ২৭ লাখ টাকার ভারতীয় শাড়ি-লেহেঙ্গা জব্দ
.............................................................................................
পাওনা টাকা চাওয়ায় গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ
.............................................................................................
চট্টগ্রামে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার
.............................................................................................
আশুলিয়ায় নারীর মাথাবিহীন মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
`টিকটক স্টার` হতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার কিশোরী
.............................................................................................
চলন্ত বাসে ধর্ষণের চেষ্টা, লাফ দিয়ে গুরুতর আহত কলেজছাত্রী
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকের বাসায় গৃহকর্মীর ঝুলন্ত লাশ
.............................................................................................
বনবিভাগের অভিযানে ড্রেজার মেশিনসহ যুবক আটক
.............................................................................................
ঘুষের টাকাসহ অডিটের দুই কর্মকর্তা আটক
.............................................................................................
রাজশাহীতে বৃদ্ধকে গলা কেটে হত্যা
.............................................................................................
কক্সবাজারে অভিনব কায়দায় ইয়াবা পাচারকালে ২ রোহিঙ্গা যুবক আটক
.............................................................................................
নওগাঁয় ৩২ খণ্ড লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
চাচার লালসার শিকার বাকপ্রতিবন্ধী
.............................................................................................
মোবাইলে গেম খেলার কথা বলে শিশুকে বলাৎকার
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জের আকাশের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি
.............................................................................................
মতলবে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে ভুয়া সাংবাদিক আটক
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD